নিম্ন আয়ের মানুষের ক্ষুধা নিবারণে ‘খুশির ঝুড়ি’

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাংলা কাগজ; আ. রহিম রেজা, ঝালকাঠি : যাঁরা আয় করেন কম, কিন্তু সংসারের খরচ করতে গিয়ে টানাহেচড়ায় পড়েন, এমন নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য ‘খুশির ঝুড়ি’র ব্যবস্থা করেছে দুরন্ত ফাউন্ডেশনের ঝালকাঠির কাঠালিয়া শাখা।

কাঠালিয়া শহরের বিভিন্ন স্থানে দেওয়া হয়েছে ওই অভিনব ঝুড়ি।

ঝুড়িতে পাউরুটি, বিস্কুট, কেক ও কলাসহ নানান খাদ্যসামগ্রি দেওয়া থাকে।

নিম্ন আয়ের মানুষ ওই ঝুড়ি থেকে খাবার খেয়ে খুবই উপকৃত হচ্ছেন।

কাঠালিয়া পাইলট স্কুলের সামনে সিয়াম কসমেটিকস এবং উপজেলা পরিষদের সামনের কিছু দোকান ছাড়াও শহরের বিভিন্ন স্থানে এসব ঝুড়ির দেখা মিললো।

ঝুড়িগুলোর সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে একটি ফেস্টুন।

বিজ্ঞাপন

সেখানে লেখা- ‘খুশির ঝুড়ি’, অসহায় ও ক্ষুধার্ত মানুষের জন্য। অসহায় ও ক্ষুধার্ত মানুষ এই ঝুড়ি থেকে খাবার নিতে পারবেন। আপনি চাইলে দোকান থেকে খাবার কিনে এই ঝুড়িতে রাখতে পারেন।

উপজেলা পরিষদের সামনের একটি দোকানের সামনে রাখা খুশির ঝুড়ি সম্পর্কে ওই দোকানের মালিক শাহারুম হোসেন বাংলা কাগকে বলেন, ‘আমিও মাঝেমধ্যে ওই ঝুড়িতে খাবার রাখি।’

‘অনেকেই এসে নিজ উদ্যোগে খাবার কিনে ঝুড়িতে রেখে যান।’

দুরন্ত ফাউন্ডেশনের কাঠালিয়া শাখার সদস্য সচিব সোয়েবুজ্জামান তিতাস বাংলা কাগজকে বলেন- খুশির ঝুড়ি অসহায় মানুষের মধ্যে খুশি ছড়াচ্ছে।

সংগঠনটির সদস্য সাদিয়া জাহান মনি বাংলা কাগজকে বলেন, ‘আমরা নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য কিছু করার চেষ্টায় এ উদ্যোগ নিয়েছি।’

এ বিষয়ক : পঞ্চগড়ে নারীর প্রতি বর্বরতা : মারধর করে গর্ভপাত!

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.