পদ্মা সেতুর রেল সংযোগ : নকশায় ত্রুটির সমাধান হয় নি ৪ মাসেও

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : দ্বিতল পদ্মা বহুমুখী সেতুতে রেল সংযোগ প্রকল্পে ত্রুটি নিয়ে জট খুলে নি চার মাসেও।

গতমাসের (অক্টোবর) শেষদিকে রেলওয়ের পক্ষ থেকে সংশোধিত নকশা পাঠানো হলেও ত্রুটি সমাধানে অগ্রগতি নেই।

এ ব্যাপারে পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম বাংলা কাগজকে বলেন-আমরা রেলওয়ের পক্ষ থেকে একটি বিশেষ নকশা পেয়েছি। সেটি আমরা দেখেছি। আমরা যা যা চেয়েছি, তা তাঁদের দেওয়া নকশায় পূরণ করা হয় নি।

‘আমরা তাঁদের সাফ বলে দিয়েছি, মূল সেতুর দুই প্রান্তে (মাওয়া ও জাজিরা) রেলপথ নির্মাণে যে ত্রুটি ধরা পড়েছে, তা শতভাগ সমাধান করতে হবে।’

‘হরিজন্টাল (আনুভূমিক) ও ভার্টিক্যাল (উলম্ব)- দুই দিকেই রেলওয়ের কাজে আপত্তি দেওয়া হয়। আন্তর্জাতিক মান হলো- হরিজন্টাল ১৫ দশমিক ৫ মিটার এবং ভার্টিক্যাল ৫ দশমিক ৭ মিটার।’

‘রেলওয়ের সর্বশেষ নকশায় এর প্রতিফল হয় নি। আমি আমার জায়গা থেকে এটা মানতে পারি না।’

বিজ্ঞাপন

এ ব্যাপারে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার গোলাম ফখরুদ্দিন আহমেদ চৌধুরী বাংলা কাগজকে বলেন- আমরা সর্বশেষ একটি বিশেষ ড্রয়িং (নকশা) সেতু কর্তৃপক্ষকে দিয়েছি।’

‘প্রয়োজনে আমরা বুয়েটের বিশেষজ্ঞ প্যানেল নিয়ে বসে নকশা ত্রুটির দ্রুত সমাধান করতে চাই।’

জানতে চাইলে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অধ্যাপক শামছুল হক বাংলা কাগজকে বলেন- আমি যতদূর জানি, ভার্টিক্যালে ৫ দশমিক ৭ মিটার রেখেই নকশা প্রদান করেছে রেল। আর হরিজন্টাল ১৫ দশমিক ৫ মিটারের স্থলে কিছুটা কম দেখিয়ে নকশা তৈরি করা হয়েছে।

‘এতে কোনও সমস্যা থাকার কথা নয়। আর সমস্যা থাকলে সেটি দ্রুত সমাধান করা উচিত।’

‘কারণ সমস্যা থাকলে এর সমাধানও থাকবে।’

এ বিষয়ক : পদ্মা সেতুর দৃশ্যমান ৫,৫৫০ মিটার

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.