ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলা : মজনুর যাবজ্জীবন ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : চলতি বছরের শুরুতে রাজধানীর কুর্মিটোলায় ফুটপাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ মামলায় একমাত্র আসামি মজনুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকার সপ্তম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনা‌লের বিচারক কামরুন্নাহার আলোচিত এ মামলার রায় দেন।

এর আগে বেলা ২টার দিকে কারাগার থেকে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয় মজনুকে।

এ সময় আসামি মজনু হই-হুল্লোর শুরু করেন। এক পর্যায়ে হাউমাউ করে কেঁদে নিজের মুক্তি চান তিনি।

এরপর সাংবাদিকসহ অন্যদের বাইরে যেতে বলেন মজনু। পরে রুদ্ধদ্বার অবস্থাতেই ঘোষণা করা হয় রায়।

সম্প্রতি ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড করা হয়। তবে ঢাবির ওই শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার অভিযোগপত্র আগেই দাখিল হয়েছিলো। ফলে পূর্বের আইন অনুযায়ীই মজনুকে সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এমন বিষয় জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

এদিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি মজনুকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি আফরোজা ফারহানা আহম্মেদ জানান- ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলার একমাত্র আসামি মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ায় তাঁরা সন্তুষ্ট। এ রায়ে তাঁরা ন্যায়বিচার পেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

মজনুর আইনজীবী (সরকার থেকে নিয়োগপ্রাপ্ত) রবিউল ইসলাম রবি বলেন, মামলায় ২৪ জন সাক্ষীর মধ্যে ২০ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়। সাক্ষীদের সাক্ষ্য জেরায় মজনুর বিরুদ্ধে ধর্ষণ নির্দিষ্টভাবে প্রমাণিত হয় নি। আশা করছি, উচ্চ আদালতে তিনি খালাস পাবেন।

গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যার পর ঢাকার কুর্মিটোলায় নির্জন সড়কের পাশে ধর্ষণের শিকার হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থী।

পরদিন তাঁর বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। ঘটনার তিনদিন পর মজনুকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

জানানো হয়- এই ব্যক্তিই (মজনু) ধর্ষণকারী।

দুই মাস তদন্তের পর গত ১৬ মার্চ আদালতে অভিযোগপত্র দা‌খিল ক‌রে ডিবি (পুলিশের গোয়েন্দা শাখা)।

তাতে শুধু মজনুকেই আসামি করা হয়। ভুক্তভোগীর পোশাক ও মোবাইল ফোনসহ ২০টি আলামত আদালতে জমা দেন তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ প‌রিদর্শক (ইন্সপেক্টর) আবু বকর সিদ্দিক।

এ বিষয়ক : ‘ধর্ষিতার’ বদলে ‘ধর্ষণের শিকার’ শব্দবন্ধ বসছে আইনে

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.