মে ১৩, ২০২১

Bangla Kagoj । News from Bangladesh, World and Universe at any Language

বাংলা ভাষাসহ পৃথিবির সব ভাষায় সর্বশেষ ও প্রধান খবর, বিশেষ প্রতিবেদন, সম্পাদকীয়, পাঠকমত, খেলাধুলা ও বিনোদনসহ সব প্রান্তের গুরুত্বপূর্ণ সকল খবর।

ব্যাংকের পর্ষদ সভায় শেয়ার হোল্ডাররা উপস্থিত থাকতে পারবেন না

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : দেশের তফসিলি ব্যাংকগুলোর পরিচালনা পর্ষদের সভায় বহিরাগত ও অসদস্য ব্যক্তিদের উপস্থিতি পরিহার করতে বলেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এক্ষেত্রে শেয়ার হোল্ডাররাও উপস্থিত থাকতে পারবেন না সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভায়।

উল্লেখ করা যেতে পারে- সম্প্রতি বেশ কয়েকটি ইসলামিক ধারার ব্যাংকে শেয়ার ধারণ করেছে চট্টগ্রামভিত্তিক এস আলম গ্রুপ। মূলত গ্রুপটি দ্বারা জনতা ব্যাংকে সংগঠিত ১৭ হাজার কোটি টাকার জালিয়াতি যথাসম্ভব আড়াল করতে এ ব্যাংক থেকে ও ব্যাংকে অনিয়মের মাধ্যকে অর্থ নেওয়ার জন্যই এস আলম গ্রুপ কয়েকটি ব্যাংকের শেয়ার ধারণ করেছে বলে সংশ্লিষ্ট নির্ভরযোগ্য সূত্রের দাবি।

কিন্তু আইন অনুযায়ী, শেয়ার ধারণ করলেই কোনও ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভায় উপস্থিত থাকতে পারেন না এস আলম গ্রুপ বা সংশ্লিষ্ট ব্যাংকে শেয়ার ধারণকারী অন্য কোনও গ্রুপ বা প্রতিষ্ঠানের কোনও প্রতিনিধি।

পর্ষদের সভায় শুধু উপস্থিত থাকতে পারেন পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা।

যে কোনও ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন- ব্যাংকটির চেয়ারম্যান, পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও- সাধারণত ব্যবস্থাপনা পরিচালক বা এমডি)।

ব্যাংকগুলোর পরিচালনা পর্ষদের সভায় বহিরাগত ও অসদস্য ব্যক্তিদের উপস্থিতি পরিহার করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে। যার নম্বর-৫৫।

বিজ্ঞাপন

বিভাগের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) নজরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ওই প্রজ্ঞাপন একইদিন দেশের সকল তফসিলি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে।

‘ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভায় বহিরাগত ও অসদস্য ব্যক্তিদের উপস্থিতি পরিহার প্রসঙ্গে’- বিষয়ক ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে-
‘উপযুর্ক্ত বিষয়ে এ বিভাগ (বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ) কতৃর্ক ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৩ তারিখে জারিকৃত বিআরপিডি সাকুর্লার লেটার নং ২৩ এর প্রতি
আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাচ্ছে।
০২। উল্লিখিত সাকুর্লার লেটারের মাধ্যমে পরিচালনা পর্ষদ ও পর্ষদের সহায়ক কমিটির সভায় ব্যাংকের পরিচালকগণ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও কোম্পানী সচিব ব্যতীত অন্য কোন (কোনও) বহিরাগত ব্যক্তি বা শেয়ারহোল্ডারদের উপস্থিতি পরিহারের বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছিল। এতদ্ব্যতীত, পর্ষদ বা পর্ষদের সহায়ক কমিটির আহ্বানক্রমে ব্যাংকের কোন (কোনও) কর্মকর্তা তাঁর সংশ্লিষ্ট কোন (কোনও) বিষয় উপস্থাপনকালে উক্ত সভায় উপস্থিত থাকতে পারবেন (পূর্ণ সময়ের জন্য নয়) মর্মেও উক্ত সার্কুলার লেটারে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছিল।
০৩। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংক এ মর্মে অবহিত হয়েছে যে, উক্ত নির্দেশনা লঙ্ঘন করে কতিপয় ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ ও পর্ষদের সহায়ক কমিটির সভায় বহিরাগত ব্যক্তি, ব্যাংকের কর্মকর্তা এবং শেয়ারহোল্ডার উপস্থিত থেকে সভায় অংশগ্রহণ করছেন। ফলে সভাসমূহে আলোচিত গোপনীয় বিষয়াবলী প্রকাশিত হয়ে যাওয়ায় ব্যাংক-কোম্পানীসহ আমানতকারীরা ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন।
০৪। সার্বিক বিষয়াবলী বিবেচনায় এ মর্মে নির্দেশনা প্রদান করা যাচ্ছে যে, কোন (কোনও) পরিস্থিতিতেই বহিরাগত কোন (কোনও) ব্যক্তি, বিশেষ প্রয়োজনে পর্ষদ ও পর্ষদের সহায়ক কমিটির সদস্যদের আহ্বান ব্যতিরেকে ব্যাংকের কোন (কোনও) কর্মকর্তা/কর্মচারী এবং শেয়ারহোল্ডার পরিচালনা পর্ষদ ও পর্ষদের সহায়ক কমিটির সভায় উপস্থিত থাকতে পারবেন না।
০৫। উক্ত নির্দেশনা পরিপালন নিশ্চিতকল্পে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকগণ পরিচালনা পর্ষদের পরবর্তী সভায় পর্ষদের অবগতির জন্য এ নির্দেশনা উপস্থাপন করবেন।
০৬। ব্যাংক-কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ নির্দেশনা জারি করা হলো।’

এর আগে ২০১৩ সালের ২৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগের ২৩ নম্বর প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছিলো-
‘ব্যাংকের পরিচালনা-পর্ষদের সভায় বহিরাগত ও অসদস্যদের উপস্থিতি এবং পরিচালকদের সম্মানীর অতিরিক্ত সুবিধা প্রদান পরিহার প্রসঙ্গে।
সম্প্রতি লক্ষ্য করা গিয়েছে যে, কতিপয় ব্যাংকের পরিচালনা-পর্ষদ সভায় অসদস্য ব্যক্তিবর্গ যেমন, কোন (কোনও) বহিরাগত ব্যক্তি, শেয়ারহোল্ডার উপস্থিত থেকে সভায় অংশগ্রহণ করছেন। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য যে, ব্যাংকের পরিচালনা-পর্ষদের সভায় ব্যাংকের পরিচালকগণ ব্যতীত কেবলমাত্র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও কোম্পানী সচিবের উপস্থিতি কাম্য। এতদ্ব্যতীত, পর্ষদ বা পর্ষদের সহায়ক কমিটির আহ্বানক্রমে ব্যাংকের কোন (কোনও) কর্মকর্তা তাঁর সংশ্লিষ্ট কোন (কোনও) বিষয় উপস্থাপনকালে উক্ত সভায় উপস্থিত থাকতে পারবেন (পূর্ণকালীন সময়ের জন্য নয়)। কোন (কোনও) পরিস্থিতিতেই কোন (কোনও) বহিরাগত ব্যক্তি বা শেয়ারহোল্ডার যাতে পরিচালনা-পর্ষদ ও পর্ষদের সহায়ক কমিটির সভায় উপস্থিত না থাকেন তা নিশ্চিত করার জন্য পরামর্শ দেয়া যাচ্ছে।
এছাড়া, কতিপয় ব্যাংক তাদের পরিচালকদের বিধি মোতাবেক প্রদেয় সম্মানীর অতিরিক্ত আর্থিক সুবিধাও প্রদান করছে বলে জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, ব্যাংক-কোম্পানী আইন ১৯৯১ এর ধারা ১৮ এর উপ-ধারা (১) এ সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ রয়েছে যে, ব্যাংক-কোম্পানীর কোন (কোনও) পরিচালক ব্যাংকের পরিচালনা-পর্ষদের সভায় অংশ গ্রহণের জন্য নির্ধারিত ফিস ব্যতীত অন্য কোন (কোনও) আর্থিক বা অন্য কোন (কোনও) সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করবেন না। ব্যাংক-কোম্পানী আইনের উক্ত ধারার বিধি-বিধান কঠোরভাবে অনুসরণ নিশ্চিত করার জন্যও আপনাদেরকে পরামর্শ দেয়া যাচ্ছে।
এই সার্কুলার ব্যাংকের পরিচালনা-পর্ষদের পরবর্তী সভায় উপস্থাপন করতে হবে।’

এ বিষয়ক : ৪ ব্যাংকে এস আলম গ্রুপের জালিয়াতি ১৭ হাজার কোটি টাকা

Facebook Comments Box

Contact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share