কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তানের গোলায় ৬ ভারতীয় নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : কাশ্মীর সীমান্তে ভারত ও পাকিস্তানের বাহিনীর মধ্যে লড়াইয়ে তিন সেনা সদস্যসহ অন্তত ছয়জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) সীমান্তের কেরান সেক্টরে হতাহতের এ ঘটনা ঘটে।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়- সীমান্তের কেরান সেক্টরে পাকিস্তানি সেনাদের গোলার আঘাতে তিনজন ভারতীয় সেনা নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন।

ভারতশাসিত কাশ্মীরের পুলিশ বলেছে- হামলায় তিনজন বেসামরিক ব্যক্তিও নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন অন্তত তিনজন। তাঁদের মধ্যে একজন তাঁর দুটি পা হারিয়েছেন।

এএফপি বলছে- কাশ্মীর সীমান্তে দুই দেশের মধ্যে সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে সবচেয়ে বড় গোলাগুলির ঘটনা এটি।

এ ঘটনার জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করছে ভারতীয় সেনারা। ভারতের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে বলছে- পাকিস্তান কোনও কারণ ছাড়াই যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে।

বিজ্ঞাপন

এ হামলায় পাকিস্তান মর্টার ও অন্যান্য অস্ত্র ব্যবহার করেছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়- ভারতীয় সেনাদের পাল্টা আক্রমণে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর অবকাঠামোগত অনেক ক্ষতি ও হতাহত হয়েছে। দুই দেশের সেনাদের লড়াইয়ে কারণে স্থানীয় গ্রামবাসী তাঁদের ঘরবাড়ি ছাড়েন।

এদিকে পাকিস্তানের পক্ষ থেকেও নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলওসি) হতাহতের কথা স্বীকার করা হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতের সংখ্যা তারা উল্লেখ করেনি। নিয়ন্ত্রণরেখায় দুই পক্ষের লড়াইয়ে তিন ভারতীয় সেনা ও তিন জঙ্গি নিহত হওয়ার পাঁচ দিন পর শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) ভয়াবহ লড়াইয়ে জড়ায় দক্ষিণ এশিয়ার পারমাণবিক শক্তিধর দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান।

১৯৪৭ সালে ভারত ও পাকিস্তান রাষ্ট্রের জন্মের সময় কাশ্মীর বিভক্ত হয়ে দুই দেশের অংশেই পড়ে। কিন্তু দুই দেশই পুরো কাশ্মীরকে নিজেদের বলে দাবি করে আসছে। এটা নিয়ে দুই পক্ষ এ পর্যন্ত তিনটি যুদ্ধে জড়িয়েছে।

এ বিষয়ক : স্বামীর টুইট, ভারতীয় মায়ের সন্তান কমলা দেবী হ্যারিস দক্ষিণ এশিয়ার মুখ উজ্জ্বল করলেন

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.