ডিসেম্বর ৫, ২০২১

The Bangla Kagoj

বিশ্বের সব দেশে, সব ভাষায়, সব সময় । বাংলা কাগজ । আপনার কাগজ । banglakagoj.net (আমাদের কোনও জাতীয় পত্রিকা নেই)।

রাষ্ট্রপতি : বাংলা, বাঙালি ও বাংলাদেশ একইসূত্রে গাঁথা

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেছেন- বাংলা, বাঙালি ও বাংলাদেশ একইসূত্রে গাঁথা।

রাষ্ট্রপতি সোমবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় তাঁর দেওয়া ভাষণে এ কথা বলেন।

সন্ধ্যা ৬টা ৩৫ মিনিটে রাষ্ট্রপতি ভাষণ শুরু করার আগে ৬টা ৯ মিনিটে সংসদে প্রবেশ করেন।

রাষ্ট্রপতি অধিবেশনকক্ষে প্রবেশের পর জাতীয় সঙ্গীত বাজানো হয়।

এরপর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের ভাষণ সম্প্রচার করা হয়।

ভাষণ সম্প্রচারকালে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে বারবার টিস্যু দিয়ে চোখ মুছতে দেখা গেছে।

রাষ্ট্রপতি তাঁর ভাষণে জাতির পিতার জন্ম থেকে শুরু করে কর্মময় জীবনের বিভিন্ন অবদান তুলে ধরেন। তুলে ধরেন বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সংগ্রাম, বাঙালি জাতির অধিকার আদায়ের প্রতিটি সংগ্রামে তাঁর নেতৃত্ব ও জেল-জুলুমের বিষয়ও।

আবদুল হামিদ তাঁর ভাষণে স্বাধীনতার পর যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মসূচি বর্ণনা করেন।

সংসদ নেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধুর ভূমিকা, বিরোধী মতের প্রতি তাঁর গুরুত্বও উঠে আসে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের ভাষণে।

বিজ্ঞাপন

রাষ্ট্রপতির ভাষণে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার শাসনামলের নানা অবদান উঠে এসেছে। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে শেখ হাসিনার যে যাত্রা, তাও উঠে এসেছে এতে।

চলমান কোভিড-১৯ সফলভাবে মোকাবিলা করে বাংলাদেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, এর চিত্রও তুলে ধরেন রাষ্ট্রপতি। তুলে ধরেন বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির কথাও।

ভাষণ শেষে সোমবারের (৯ নভেম্বর) বৈঠকেই সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুজিব শতবর্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে বিনম্র শ্রদ্ধা জানাতে ১৪৭ বিধিতে প্রস্তাব তুলবেন।

ওই প্রস্তাবের ওপর আগামী তিনদিন আলোচনা হবে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ- মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত এই বিশেষ অধিবেশন শুরু হয় রোববার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায়।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া এটি একাদশ জাতীয় সংসদের দশম অধিবেশন।

সংসদ কক্ষে জাতির জনকের ছবিসহ এটাই সংসদের প্রথম বৈঠক।

এটি বিশেষ অধিবেশন হলেও এর প্রথম কার্যদিবস সাধারণ অধিবেশনের মতোই।

অধ্যাদেশ উপস্থাপন, কয়েকটি খসড়া আইন ও বিলের প্রতিবেদন উপস্থাপনের জন্য এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ- মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত জাতীয় সংসদের এ বিশেষ অধিবেশেনের প্রথমদিনে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের অধ্যাদেশকে আইনে পরিণত করতে জাতীয় সংসদে ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) বিল-২০২০’ উত্থাপন করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

এ বিষয়ক : সংসদের ইতিহাসে প্রথম বিশেষ অধিবেশন শুরু

Facebook Comments Box
Contact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share