সংসদের ইতিহাসে প্রথম বিশেষ অধিবেশন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : শুরু হলো দেশের ইতিহাসে সংসদের প্রথম বিশেষ অধিবেশন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত এই বিশেষ অধিবেশন শুরু হয় রোববার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায়।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া ওই অধিবেশন একাদশ জাতীয় সংসদের দশম অধিবেশন।

সংসদ কক্ষে জাতির জনকের ছবিসহ এটাই সংসদের প্রথম বৈঠক।

এটি বিশেষ অধিবেশন হলেও এর প্রথম কার্যদিবস চলবে সাধারণ অধিবেশনের মতোই।

অধ্যাদেশ উপস্থাপন, কয়েকটি খসড়া আইন ও বিলের প্রতিবেদন উপস্থাপনের জন্য এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

অধিবেশন শুরুর পর স্পিকার সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যদের মনোনয়ন দেন।

এ অধিবেশনে সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যরা হলেন- বীরেন শিকদার, শামসুল হক টুকু, আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, উম্মে কুলসুম স্মৃতি ও আবুল কালাম আজাদ।

স্পিকার-ডেপুটি স্পিকারের অনুপস্থিতিতে তাঁদের মধ্যে অগ্রবর্তীজন অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (৯ নভেম্বর) রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের স্মারক বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হবে বিশেষ অধিবেশনের কার্যক্রম।

রাষ্ট্রপতির বক্তব্যের আগে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের ভাষণ সংসদ কক্ষে দেখানো হবে।

বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য ও কর্মময় রাজনৈতিক জীবন নিয়ে রাষ্ট্রপতির স্মারক বক্তব্যের পর তা নিয়ে আলোচনার জন্য একটি সাধারণ প্রস্তাব আনা হবে।

ওই প্রস্তাবের উপর সরকার ও বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যদের আলোচনা শেষে তা পাস হবে।

অধিবেশনের শুরুতে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী জানান, রাষ্ট্রপতির বক্তব্যের পরে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর জীবন নিয়ে আলোচনা হবে।

সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে- এরপর আগামী সপ্তাহে দুই বা তিন দিন সাধারণ বৈঠক চলার মাধ্যমে অধিবেশনটি শেষ হতে পারে।

অধিবেশনের শুরুতে স্পিকার সংসদ কক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির স্থাপনের বিষয়টি অবহিত করেন।

করোনাভাইরাস মহামারিকালের আগের তিনটি অধিবেশনের মতো এবারও সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই এ অধিবেশনের কার্যক্রম চলবে।

এ বিষয়ক : মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে সংসদের বিশেষ অধিবেশন শুরু ৮ নভেম্বর

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.