অর্থমন্ত্রীর মুখে দুই কথা : এবার টিকা কিনতে ঋণ চাইলেন ৪০০০ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে প্রথমবারের মতো অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়া আ হ ম মুস্তফা কামাল করোনাভাইরাসের টিকা নিয়ে দুই ধরনের কথা বলেছেন।

প্রায় আড়াই মাস আগে তিনি করোনাভাইরাসের টিকার জন্য বাংলাদেশ অর্থ বরাদ্দ রেখেছে জানালেও এখন তিনি সেই টিকার জন্যই ঋণ চেয়েছেন আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা- বিশ্বব্যাংকের কাছে।

শনিবার (২৪ অক্টোবর) অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়- বিশ্বব্যাংকের কাছে পাঁচ শ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (৫০ কোটি ডলার বা ৮০ টাকা দরে ৪০০০ কোটি টাকা) ঋণ সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশ।

এ ছাড়া, বাজেট সাপোর্ট হিসেবে ২৫০ মিলিয়ন ও বিভিন্ন ক্ষয়-ক্ষতি পূরণে প্রস্তাবিত কোভিড-১৯ রিকোভারি অ্যান্ড রেসপন্স প্রকল্পের মোট বরাদ্দ পাঁচ শ মিলিয়নের মধ্যে চলতি অর্থবছরে জরুরি ভিত্তিতে অন্তত ২৫০ মিলিয়ন ডলার ছাড় দিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়- গত ২২ অক্টোবর সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত বিশ্বব্যাংক- আইএমএফ এর বার্ষিক সভা ২০২০- এ অংশ নিয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মু্স্তফা কামাল ওই ঋণ সহায়তা দিতে অনুরোধ জানান।

বিজ্ঞাপন

এর আগে গেল ১২ আগস্ট অনলাইন জুমে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘টিকার জন্য একটি সোর্সের ওপর নির্ভর না করে একাধিক সোর্স থেকে টিকা সংগ্রহের ব্যবস্থা করতে হবে।’

‘যাঁরাই টিকা তৈরি করে, তাঁদের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ করতে হবে। এ জন্য আমরা কিছু অর্থ রেখে দিয়েছি, যখন প্রয়োজন হবে, তখন যাতে টিকা কিনতে পারি।’

অর্থমন্ত্রীর এমন বক্তব্য সংক্রান্ত প্রতিবেদন ওইদিনই বাংলা কাগজসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ ও প্রচারিত হয়।

এ বিষয়ক : করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের জন্য আলাদা অর্থ রয়েছে : অর্থমন্ত্রী

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.