পদ্মায় বসলো ৩২তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৪৮০০ মিটার, বাকি রইলো ৯

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাংলা কাগজ; মুন্সীগঞ্জ : নদীতে তীব্র স্রোতের পরও পদ্মা সেতুতে বসানো হলো ৩২তম স্প্যান। রোববার (১১ অক্টোবর) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর পিয়ারে ওই স্প্যান বসানো হয়।

৩১তম স্প্যান বসানোর ৪ মাস পর স্প্যানটি বসলো। এরই মধ্যে দিয়ে দেশের বহুল কাঙ্ক্ষিত দীর্ঘতম ওই সেতুর ৪ হাজার ৮শ মিটার দৃশ্যমান হলো।

এ হিসাবে মোট ৪১টি স্প্যানের মধ্যে বাকি রইলো ৯টি। চলতি বছরের ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে বাকি ৯টি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

তবে এরপরও সেতুর আরও কিছু কাজ বাকি থাকবে।

পদ্মা সেতুর বাকি ৯টি স্প্যানের সবগুলোই মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে বসবে। এগুলো ১-২, ২-৩, ৩-৪, ৭-৮, ৮-৯, ৯-১০,১০-১১, ১১-১২ ও ১২-১৩ নম্বর পিয়ারে বসানোর কথা রয়েছে।

আর সেতুর জাজিরা প্রান্তের সবগুলো স্প্যান ইতোমধ্যে বসেছে।

রোববার (১১ অক্টোবর) ৩২তম স্প্যান বসানোর বিষয়টি বাংলা কাগজকে নিশ্চিত করেছেন পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে- সেতু প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৮১ ভাগেরও বেশি এবং মূল সেতুর প্রায় ৯০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে।

বর্তমানে আরও তিনটি স্প্যান ‘ওয়ান-এ’, ‘ওয়ান-বি’, ‘ওয়ান-সি’ সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছে। এ মাসের মধ্যেই এগুলো বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে।

প্রসঙ্গত- ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু। এরপর একে একে বসানো হয় ৩১টি স্প্যান। এতে দৃশ্যমান হয়েছে সেতুর ৪ হাজার ৬৫০ মিটার অংশ। সর্বশেষ স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে মোট বসলো ৩২টি স্প্যান ও দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৮শ মিটার।

৪২টি পিয়ারে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হবে। এরমধ্যে সবকটি পিয়ার এরই মধ্যে দৃশ্যমান হয়েছে। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।

দুটি সংযোগ সড়ক ও অবকাঠামো নির্মাণ করেছে বাংলাদেশের আবদুল মোমেন লিমিটেড।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো। নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ হওয়ার পর আগামী ২০২১ সালেই খুলে দেওয়ার কথা রয়েছে স্বপ্নের এ পদ্মা সেতুর।

এ বিষয়ক : ৪ আগস্ট স্বাধীনতা লাভ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আর পদ্মা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন শেখ হাসিনা

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.