রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন রিভা গাঙ্গুলি

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ভারতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত রিভা গাঙ্গুলি দাশ। রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাষ্ট্রপতির বাসভবন বঙ্গভবন ও প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবনে ওই সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদায়ী হাইকমিশনারকে নৌকা প্রতীক এবং বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী জামদানি শাড়ি উপহার দেন।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে তাঁর বাসভবন বঙ্গভবনে ভারতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত রিভা গাঙ্গুলি দাশ সাক্ষাৎ করেন- পিআইডি’র সৌজন্যে বাংলা কাগজ।

সাক্ষাতের সময় রিভা গাঙ্গুলী দুই দেশের সম্পর্ককে আরো এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। প্রধানমন্ত্রী তাঁকে শুভ কামনা জানান এবং বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনের বিষয়ে রিভা গাঙ্গুলীর প্রশংসা করেন।

রিভা গাঙ্গুলি বাংলাদেশে প্রায় দেড় বছর দায়িত্ব পালন করেছেন। দিল্লির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে পূর্ব এশিয়ার দেশগুলো দেখভালের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব নিতে আগামী বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) ঢাকা ছাড়ছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তাঁর বাসভবন গণভবনে ভারতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত রিভা গাঙ্গুলি দাশ সাক্ষাৎ করেন- পিআইডি’র সৌজন্যে বাংলা কাগজ।

এদিকে শেষ সময়ে রিভা গাঙ্গুলি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর দেখা পাচ্ছেন না মর্মে দিল্লি এবং ঢাকার মিডিয়ায় ‘কথিত খবর’ চাউর হলে খানিকটা বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তবে এর কোনও সত্যতা নেই বলেই জানিয়েছিল ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সেইসঙ্গে এটি ‘বানোয়াট গল্প’ বলেও অভিহিত করে সাউথ ব্লক।

বিজ্ঞাপন

গণমাধ্যমে দেওয়া বার্তায় বলা হয়েছিল- সরকার প্রধানের সঙ্গে ভারতীয় হাইকমিশনারের ‘কথিত’ সাক্ষাৎ না হওয়ার প্রশ্নে যখন উভয় দেশের গণমাধ্যম সরগরম ঠিক সেই মুহূর্তে (জুলাইয়ের তৃতীয় সপ্তাহে) ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনের তরফে সেগুনবাগিচায় একটি নোটভারবাল পাঠিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অ্যাপয়েনমেন্ট চাওয়া হয়। তবে এর আগে কোনও অ্যাপয়েনমেন্টই চাওয়া হয় নি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ এশিয়া অনুবিভাগ রাষ্ট্রাচার অনুবিভাগের মাধ্যমে ওই নোট প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের বিবেচনায় পাঠায়। যার প্রেক্ষিতেই ২৭ সেপ্টেম্বর ভারতীয় দূতের বিদায়ী সাক্ষাতের শিডিউল মিলেছে।

এদিকে ২৯ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ-ভারত পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের জয়েন্ট কনসালটেটিভ কমিশন জেসিসি’র ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। পরদিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সঙ্গে ভারতীয় দূতের বিদায়ী বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

এ বিষয়ক : আমাদের মা-আমাদের বোন ও আমাদেরই কন্যা শেখ হাসিনা

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.