আহমদ শফীর জানাজা দুইটায়, বিজিবি মোতায়েন

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : হেফাজতে ইসলামের প্রয়াত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর জানাজা শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বেলা দুইটায় চট্টগ্রামের হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। পরে মাদ্রাসার ভেতর উত্তর মসজিদসংলগ্ন কবরস্থানে তাঁর মরদেহ দাফন করা হবে।

এদিকে শাহ আহমদ শফীর জানাজাকে কেন্দ্র করে যে কোনও ধরনের ‘অনভিপ্রেত’ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসন সাত ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ১০ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করেছে। এর মধ্যে হাটহাজারী উপজেলায় চার ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে চার প্লাটুন এবং ফটিকছড়ি, রাঙ্গুনিয়া ও পটিয়া উপজেলার প্রতিটিতে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে দুই প্লাটুন করে বিজিবি মোতায়েন থাকছে।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের রুটিন দায়িত্বে থাকা ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি স্বাক্ষরিত আদেশে ম্যাজিস্ট্রেট ও বিজিবি মোতায়েন করা হয়।

জানা গেছে- জানাজা শেষে দাফনের জন্য ইতোমধ্যে শাহ আহমদ শফীর মরদেহ হাটহাজারীতে নেওয়া হয়েছে। শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে তাঁর মরদেহ বহন করা গাড়িটি হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসায় প্রবেশ করে। ঢাকা থেকে গাড়িটি ভোরে রওনা হয়।

জানা গেছে- ইতোমধ্যে মাদ্রাসার ভেতর উত্তর মসজিদসংলগ্ন কবরস্থানে কবর খোঁড়া শেষ হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

জানাজা ও দাফনের বিষয়টি গণমমাধ্যমকে নিশ্চিত করে মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক মাওলানা শেখ আহমদ বলেন- মৃত্যুর সংবাদ পাওয়ার পর রাতে মাদ্রাসার জ্যেষ্ঠ শিক্ষকেরা বসে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এদিকে হেফাজতে ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফীর জানাজায় অংশ নিতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে লোকজন চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদ্রাসায় সকাল থেকেই যাওয়া শুরু করেন। এতে লোকজনের ভিড়ে পূর্ণ হয়ে যায় মাদ্রাসার মাঠ।

লোকসমাগম বেড়ে যাওয়ায় হাটহাজারী বাসস্ট্যান্ড থেকে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এ কারণে হাটহাজারী বাসস্ট্যান্ড থেকে হেঁটে লোকজন মাদ্রাসায় যান। অন্যদিকে নাজিরহাট সড়কে দিয়ে আসা লোকজনও হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গেট পর্যন্ত যেতে পারছেন। সেখান থেকে হেঁটে মাদ্রাসায় যেতে হচ্ছে।

এ বিষয়ক : ১০৪ বছর বয়সে মারা গেলেন শাহ আহমদ শফী, রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.