বিদ্যুতের লোড ছিল না, বলার পরও গ্যাস সংযোগ ঠিক করে নি তিতাস

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : নারায়ণগঞ্জের তল্লায় মসজিদে এসি বিস্ফোরণের ঘটনায় অনুসন্ধান চালিয়েছে বাংলা কাগজ। অনুসন্ধানে দেখা গেছে- মসজিদটির বর্ধিতাংশের কাজ হয় ১৯৯০ সালে। ওই বর্ধিতাংশের কাজ করতে গিয়েই মূলত গ্যাস সংযোগের ওপর দিয়ে মসজিদ নির্মাণ কাজটি হয়। সে সময় মসজিদ নির্মাণে তিতাসের কাছ থেকে কোনও অনুমোদন নেওয়া হয় নি কিংবা তিতাসকে গ্যাস সংযোগ সরিয়ে নেওয়ার জন্যও বলা হয় নি।

আরও পড়ুন : মসজিদ নির্মাণের অনুমোদন ছিল কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

মসজিদের বিস্ফোরণে সকাল পর্যন্ত মারা গেলেন ২৩ জন

বিজ্ঞাপন

পরে অবশ্য ছয়-সাত মাস আগে থেকে মসজিদ কর্তৃপক্ষ বারবার তিতাসকে গ্যাস লিকেজের ব্যাপারে তাগাদা দেওয়ার পরও প্রতিষ্ঠানটি থেকে কোনও ধরনের সাড়া দেওয়া হয় নি। এ ব্যাপারে এলাকাবাসীর অভিযোগ, গ্যাস লিকেজটি সারানোর জন্য তিতাস কর্তৃপক্ষ ৫০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেছিল। তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছে তিতাস কর্তৃপক্ষ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক তিতাস কর্মকর্তা দাবি করেন- মসজিদ কমিটি বা এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে তাঁদের কাছে এ ব্যাপারে কোনও অভিযোগই দেওয়া হয় নি। আর অভিযোগ পেলে অবশ্যই তাঁরা দেখতেন।

অনুসন্ধানে আরও বেরিয়ে এসেছে- ছয়টি এসি চলার মতো মসজিদের বিদ্যুৎ সংযোগেরও সহনক্ষমতা ছিল না।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.