অক্টোবর ২০, ২০২১

The Bangla Kagoj

বাংলা কাগজ । আপনার কাগজ । banglakagoj.net

৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার : ‘নির্দোষ’ হয়েও বিদেশ ফেরত ৮৩ বাংলাদেশি কারাগারে!

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : সন্দেহভাজন অপরাধী হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে ভিয়েতনাম ও কাতার থেকে ফেরা ৮৩ বাংলাদেশিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (পহেলা সেপ্টেম্বর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত সিকদার তাঁদের কারাগারে পাঠানোর এ আদেশ দেন। পরে তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়।

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : সন্দেহভাজন অপরাধী হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে ভিয়েতনাম ও কাতার থেকে ফেরা ৮৩ বাংলাদেশিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (পহেলা সেপ্টেম্বর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত সিকদার তাঁদের কারাগারে পাঠানোর এ আদেশ দেন। পরে তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেপ্তার বিষয়ক : নব্য জেএমবির এক সদস্য গ্রেপ্তার

গ্রেপ্তারের ৪৩ দিনে ৬১ দিনের রিমান্ড পেলেন শাহেদ

নব্য জেএমবির সন্দেহভাজন সদস্য গ্রেপ্তার

এ ব্যাপারে অভিবাসী বিষয়ক সাবেক সাংবাদিক ও বর্তমানে ব্র্যাকে কর্মরত শরিফুল হাসান বাংলা কাগজকে বলেন- আসলে তাঁদের কেহই অপরাধী নন। তাঁরা আসলে কাজ হারিয়ে দূতাবাসে অভিযোগ জানিয়েছিলেন। কিন্তু পরে কেন তাঁদের বিরুদ্ধে এমন ব্যবস্থা নেওয়া হলো তা আসলে আমাদের বোধগম্য নয়।

এর আগে বিদেশফেরত ৮৩ বাংলাদেশিকে সন্দেহভাজন অপরাধী হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাঁদের কারাগারে রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে বিদেশফেরত ৮৩ বাংলাদেশিকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন শেষে সন্দেহভাজন আসামি দেখিয়ে গ্রেপ্তার করে তুরাগ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের মধ্যে ৮১ জন ভিয়েতনাম ফেরত। দুইজন কাতার ফেরত।

এ বিষয়ে তুরাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল মক্তাকিন বলেন, ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন শেষে বিদেশফেরত ৮৩ বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁরা ওই দু’দেশে অবস্থানকালে অপরাধ করেছেন। ভিয়েতনাম থেকে তাঁদের অপরাধের বিষয়টি জানানো হয়েছিল। সে কারণে ৮৩ জনকে সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে (৫৪ ধারায়) গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিষয়টি নিয়ে ডিএমপির উত্তরা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) নাবিদ কামাল শৈবাল বলেন, গ্রেপ্তার ৮৩ জনের মধ্যে দু’জন কাতার ফেরত। বাকিরা সবাই ভিয়েতনাম ফেরত। তাঁরা সেখানে কোনও অপরাধে জড়ানোয় জেলখানায় ছিলেন। সেখান থেকে তাঁদের বাংলাদেশে পাঠানো হয়। তবে তারা ঠিক কী ধরনের অপরাধ করেছেন, তা এখনও আমরা জানতে পারি নি। তাই সন্দেহজনক হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গত ১৮ আগস্ট ভিয়েতনাম থেকে ১০৬ জন বাংলাদেশিকে ঢাকায় ফেরত পাঠানো হয়। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে তাঁদের সবাইকে উত্তরা দিয়াবাড়ী ক্যাম্পে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। গত ৩১ আগস্ট কোয়ারেন্টিন শেষ হয় তাঁদের। এরমধ্যে ভিয়েতনামে যারা অপরাধ করেছেন, তাদের বিষয়ে বাংলাদেশ পুলিশের কাছে অভিযোগ আসে। সে অনুযায়ী, মঙ্গলবার ১০৬ জনের মধ্যে অভিযুক্ত ৮৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

Facebook Comments Box
Contact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share