ভাড়া দিতে না পারায় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্স!

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে ডিজিটাল সিনেমা থিয়েটার স্টার সিনেপ্লেক্স বন্ধ হয়ে যেতে পারে। ভাড়া পরিশোধ করতে না পারায় এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুন : বন্ধ সিনেমা হল চালুতে আর্থিক সহায়তা দেবে সরকার : প্রধানমন্ত্রী

করোনায় মারা গেছেন শাকিব খানের প্রথম সিনেমার পরিচালক

২০০৪ সালে বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্সের ৮ তলায় ৬টি হল নিয়ে যাত্রা শুরু করে স্টার সিনেপ্লেক্স। সবকটি হল মিলিয়ে একসঙ্গে ১ হাজার ৬শ দর্শক ছবি দেখার সুযোগ পান।

বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) বাংলা কাগজকে হল বন্ধ হয়ে যাওয়ার শঙ্কার বিষয়টি জানিয়েছেন স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞাপন

স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহাবুব রহমান বলেন- প্রতি মাসে অনেক ভাড়া গুনতে হয় স্টার সিনেপ্লেক্সটি চালু রাখতে। করোনার জন্য পাঁচ মাস ধরে সব বন্ধ ছিল। ব্যবসা নেই। ব্যবসা না হলে ভাড়া দেওয়া সম্ভব না। বিষয়টি নিয়ে বসুন্ধরা ও স্টার সিনেপ্লেক্সের মধ্যে অনেক আলোচনা হলেও কোনও লাভ হয় নি। বাধ্য হয়েই বসুন্ধরা থেকে সরে যেতে হচ্ছে।

জানা গেছে- ইতোমধ্যে স্টার সিনেপ্লেক্সের কয়েক মাসের ভাড়া আটকে গেছে। যা পরিশোধ করতে পারছে না স্টার সিনেপ্লেক্সের মালিক পক্ষ। এ নিয়ে বসুন্ধরা গ্রুপের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বেশ কয়েক দফায় আলোচনা হলেও আশানুরূপ কোনও ফল পাওয়া যায় নি।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি বন্ধ সিনেমা হল চালুর ব্যাপারে স্বল্প সুদে ঋণ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। এমন আশা জাগানিয়া ঘোষণার সময় স্টার সিনেপ্লেক্স বন্ধ হওয়ার খবরটি ঢাকা শহরের সিনেমাপ্রেমীদের হতাশ করেছে। স্টার সিনেপ্লেক্স বন্ধের খবর গণমাধ্যমে প্রকাশ হতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ক্ষোভ, আক্ষেপ প্রকাশ করে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন অনেকেই।

ওই তালিকায় সাধারণ দর্শকের পাশাপাশি রয়েছেন সিনেমা, নাটক, সংগীত, শিল্প ও সংস্কৃতিকর্মীসহ নানা পেশার মানুষ। তাঁদের কেহই বসুন্ধরা সিটিতে সিনেপ্লেক্স বন্ধ হয়ে যাওয়াটা মেনে নিতে পারছেন না।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.