মে ১৩, ২০২১

Bangla Kagoj । News from Bangladesh, World and Universe at any Language

বাংলা ভাষাসহ পৃথিবির সব ভাষায় সর্বশেষ ও প্রধান খবর, বিশেষ প্রতিবেদন, সম্পাদকীয়, পাঠকমত, খেলাধুলা ও বিনোদনসহ সব প্রান্তের গুরুত্বপূর্ণ সকল খবর।

বসিলায় ৭ দিনের অস্থায়ী ক্যাম্প : ট্যাক্স দেওয়ার আহ্বান আতিকের

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলা এলাকায় সাতদিনের অস্থায়ী ক্যাম্প করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। ওই ক্যাম্প বসিয়ে জানানো হয়েছে- হোল্ডিং ট্যাক্সসহ অন্যান্য ট্যাক্স পরিশোধ করার জন্য। মঙ্গলবার (পহেলা সেপ্টেম্বর) ওই ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম।

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলা এলাকায় সাতদিনের অস্থায়ী ক্যাম্প করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। ওই ক্যাম্প বসিয়ে জানানো হয়েছে- হোল্ডিং ট্যাক্সসহ অন্যান্য ট্যাক্স পরিশোধ করার জন্য। মঙ্গলবার (পহেলা সেপ্টেম্বর) ওই ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম।

আরও পড়ুন : বসিলায় গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন, যে কোনও সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা

তিনি বলেন- ঢাকা শহরে যত্রতত্রভাবে সবাই বাণিজ্য করছে, কিন্তু আমরা সিটি করপোরেশন কোনও ট্যাক্স পাচ্ছি না। ব্যবসা করার অধিকার সবার আছে, কিন্তু অবৈধভাবে ব্যবসা করার অধিকার কারও নেই। যারা এখনো ট্যাক্স দেন নি, তাঁদের প্রতি অনুরোধ আপনার হোল্ডিং ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স ফি পরিশোধ করে বৈধ হোন।

মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন রাজস্ব আদায় বৃদ্ধির লক্ষ্যে চিরুনি অভিযান শুরু করে। প্রথম পর্যায়ে ডিএনসিসির অঞ্চল-২ ও অঞ্চল-৫ এর আওতায় ১৮টি ওয়ার্ডে একযোগে এই অভিযান শুরু হয়। ওই অভিযানের উদ্দেশ্য- যে সকল বাসাবাড়ি ও দোকানপাট সিটি করপোরেশনকে হোল্ডিং ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স ফি দেন না, তাঁদের ট্যাক্সের আওতায় আনা।

চিরুনি অভিযানের উদ্বোধন শেষে মেয়র নিজে উপস্থিত থেকে ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের বসিলা ব্রিজ এলাকা পরিদর্শন করেন। এ সময় বসিলা ১ নম্বর রোডের ওয়েস্ট ধানমণ্ডির ১২৪/৯/এ এর মোল্লা জেনারেল স্টোরে ট্রেড লাইসেন্সের মেয়াদ না থাকায় জরিমানা করা হয়। এরপর সেখানে আশপাশের কয়েকটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন- ট্যাক্স আদায় সহজ করতে আগামী বছরের পহেলা জানুয়ারি থেকে অনলাইনে ট্যাক্স আদায় শুরু হবে। আমরা ট্যাক্স বাড়াচ্ছি না, আমরা ট্যাক্সের আওতা বাড়াতে চাই। আমরা দেখেছি অনেকে আবাসিক এলাকায় বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান করে ব্যবসা করছে। বাসার গ্যারেজে ব্যবসা করছে। ঢাকা শহরে যত্রতত্রভাবে সবাই বাণিজ্য করছে, তাতে আমরা কোনও ট্যাক্স পাচ্ছি না। এর একটি বিহিত করা দরকার।

বিজ্ঞাপন

এ সময় মেয়র জানান- চিরুনি অভিযানের মাধ্যমে পর্যায়ক্রমে করের আওতা বাড়ানো হবে। প্রত্যেকটা বাড়ির মালিককে ট্যাক্স দিতে হবে। কেউ ট্যাক্সের বাইরে থাকতে পারবে না। কোনও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ট্রেড লাইসেন্সের বাইরে ব্যবসা করতে পারবে না। আর সকল বিজ্ঞাপনী বিল বোর্ডের জন্য সিটি করপোরেশনের অনুমতি নিতে হবে।

বছিলা এলাকায় ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স সেবা প্রদানের লক্ষ্যে বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) থেকে এক সপ্তাহের ক্যাম্প অফিস করার ঘোষণা দিয়ে মেয়র বলেন, এই এলাকাতে ৭ দিনের অস্থায়ী ক্যাম্প করার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। এলাকাবাসীকে মাইকিং করে দেওয়া হচ্ছে। আপনারা ট্যাক্স দিয়ে বৈধ হোন। অবৈধভাবে কাউকে ব্যবসা-বাণিজ্য করার অধিকার দেওয়া হয় নি। কেউ ট্যাক্স দেবে, কেউ দেবে না- এটি হতে পারে না। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে কাউন্সিলর যতবেশি ‘নয়াবাড়ি’ ট্যাক্সের আওতায় আনতে পারবে তাঁকে ধন্যবাদ জানানো হবে।

মেয়র আরও বলেন- যাঁরা এতদিন ট্যাক্স দেন নি আর সেই সুযোগ নেই। যে বাড়ি যেদিন থেকে ট্যাক্স ধার্য করা হয়েছে সেদিন থেকেই ট্যাক্স দিতে হবে। যার যতদিন বাকি ততদিনের ট্যাক্স দিতে হবে। সঙ্গে ১৫ শতাংশ পেনাল্টি দিতে হবে।

Facebook Comments Box

Contact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share