বিদায় সি আর দত্ত, সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : শেষকৃত্য সম্পন্নের আগে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সেক্টর কমান্ডার মেজর জেনারেল (অবসর) সি আর দত্ত (চিত্ত রঞ্জন দত্ত) বীর উত্তম এর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে সর্বসাধারণ।

আজ মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টায় রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দিরে নেওয়া হয় সি আর দত্তের মরদেহ। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বীর উত্তম সি আর দত্তের তিন মেয়ে, ছেলে, মেয়ের জামাতা ও নাতি-নাতনিরা। এ সময় তাঁর মরদেহের প্রতি ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানায় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। সেনাবাহিনীর একটি দল সামরিক কায়দায় গান স্যালুট দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়। তাঁকে দেওয়া হয় রাষ্ট্রীয় সম্মাননাও।

পরে সি আর দত্তের মরদেহের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটি, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, বাংলাদেশ মহিলা ঐক্য পরিষদ, ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির, বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখা, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম, বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোট ও লালবাগ থানা পূজা কমিটি।

বিজ্ঞাপন

ঢাকেশ্বরী মন্দির থেকে সকাল ১১টায় মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় রাজারবাগ বরদেশ্বরী শ্মশানে। সেখানে শেষকৃত্যানুষ্ঠানের আগে গান স্যালুটের মাধ্যমে সামরিক সম্মাননা জ্ঞাপন করা হয় সি আর দত্তের প্রতি।

প্রসঙ্গত, গতকাল সোমবার (৩১ আগস্ট) সকালে এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে তাঁর মরদেহ দেশে এসে পৌঁছায়। মরদেহ বিমানবন্দরে পৌঁছার পর এই বীর সেনানির কফিন জাতীয় পতাকা দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়। এর পর মরদেহ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে নিয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) হিমঘরে রাখা হয়।

পূর্বঘোষণা অনুসারে, আজ মঙ্গলবার (পহেলা সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৭টায় সিএমএইচ হিমাগার থেকে সি আর দত্তের মরদেহ বনানী ডিওএইচএসের ২ নম্বর সড়কের ৪৯ নম্বর বাসভবনে নেওয়া হয়। পরে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য ঢাকেশ্বরী মন্দির চত্বরে নিয়ে যাওয়া হয় মরদেহ।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.