সিনহা হত্যাকাণ্ড : পুলিশের মামলার ৩ সাক্ষীসহ ৭ আসামি ৭ দিন করে রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের গুলিতে সাবেক সেনাসদস্য সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তার বোনের দায়ের করা মামলায় পুলিশের তিন সাক্ষীসহ সাতজনকে সাতদিন করে রিমান্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। তিন সাক্ষী ছাড়া বাদবাকি চার পুলিশকে এর আগে দু’দিন করে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

সর্বশেষ বুধবার (১২ আগস্ট) কক্সবাজারের আদালত সাতজনের সাতদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

যাঁদের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে, তাঁরা হলেন- পুলিশের সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) লিটন মিয়া, পুলিশের কনস্টেবল সাফানুর রহমান, কামাল হোসেন ও আবদুল্লাহ আল মামুন। বাকি তিনজন (পুলিশের মামলার সাক্ষী) হলেন- মো. নুরুল আমিন, মো. নেজামুদ্দিন ও মোহাম্মদ আয়াজ। পরের তিনজনই টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের মারিশবুনিয়া এলাকার বাসিন্দা। এরা হত্যাকাণ্ডের পর সিনহা রাশেদ খানকে ডাকাত বলে প্রচার করেছিল।

বিজ্ঞাপন

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গত ৫ আগস্ট সিনহা রাশেদের বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস বাদি হয়ে কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সাবেক পরিদর্শক লিয়াকত ও সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরদিন ৬ আগস্ট কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিসিয়াল আদালতে আত্মসমর্পণ করেন বরখাস্ত ওসি প্রদীপ ও লিয়াকতসহ ৭ আসামি।

প্রসঙ্গত- আদালতের নির্দেশে বর্তমানে চারটি মামলাই তদন্ত করছে র‌্যাব। এরমধ্যে পুলিশের মামলায় গ্রেপ্তার সিনহা রাশেদের সহযোগি সিফাত ও শিপ্রাকে জামিনে মুক্তি দিয়েছেন আদালত।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.