‘শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে শেখ কামালের রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতি বিভাসিত’

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বের মধ্যেই শেখ কামালের রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতি বিভাসিত বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শেখ কামাল- সংগৃহীত।

তিনি আরও বলেন, ‘শেখ কামাল ছিলেন দূরদর্শী ও গভীর চিন্তাবোধের অধিকারী। খেলাধুলা ও সংস্কৃতি চর্চার পাশাপাশি তিনি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সংগঠিত বাঙালি জাতির অধিকার আদায়ের সংগ্রামে নিবেদিতপ্রাণ এক যুবক।’

আজ বুধবার (৫ আগস্ট) নিজ বাসভবনে ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

সকালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র, ক্রীড়া সংগঠক, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ধানমন্ডির আবাহনী ক্লাব প্রাঙ্গণে তাঁর প্রতিকৃতিতে আওয়ামী লীগের নেতারা পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে। সেখানে অংশ নেন তিনি।

এছাড়া সেতুমন্ত্রী বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত শেখ কামালের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে অংশ নেন।

বিজ্ঞাপন

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তিনি ছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গীকারের প্রতি সর্বদা শ্রদ্ধাশীল। রাষ্ট্র বা সরকার প্রধানের পুত্র হয়েও অত্যন্ত সাদাসিধে জীবনযাপন করতেন। ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে থেকেও শেখ কামাল ছিলেন নির্লোভ ও নির্মোহ।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান প্রজন্মের কাছে শেখ কামাল অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব হলেও স্বাধীনতার বিপক্ষ শক্তি ও দেশবিরোধী চক্র জাতির পিতার পরিবার নিয়ে বারবার মিথ্যাচার করে জনমানসে এক ভ্রান্ত প্রতিচিত্র আঁকার অপচেষ্টা করেছে। কিন্তু প্রকৃতির নিয়মে সত্য তার নিজস্ব শক্তি নিয়ে উদ্ভাসিত হয়। তিনি বলেন, অভিজ্ঞতায়, স্মৃতিতে এবং অনুভূতিতে শেখ কামাল চির অম্লান প্রজম্ম থেকে প্রজন্মান্তরে।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘শেখ কামাল ছিলেন অফুরন্ত প্রাণশক্তির অধিকারী। বিরামহীন ছুটে চলা এ উদ্দীপ্ত কর্মনিষ্ঠ প্রাণের স্পন্দনকে চিরতরে স্তব্ধ করে দেয় খুনি ঘাতক চক্র। খুনিরা ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শেখ কামালকে হত্যার মধ্য দিয়ে শুধুমাত্র প্রতিশ্রুতিশীল তারুণ্য বা যুব অহংকারকেই হত্যা করেনি, হত্যা করেছিল ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের এক সম্ভাবনাময় নেতৃত্বকে। বাঙালির হৃদয়ে শেখ কামালের প্রতিচ্ছবি চির জাগরুক।’

এ সময় তিনি কক্সবাজারে স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সের সাবেক কর্মকর্তা ও সেনা বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদের মর্মান্তিক মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে সত্য উদঘাটন করে এ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান তিনি।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.