পাপিয়া ও তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : পাপিয়া ও তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুদক (দুর্নীতি দমন কমিশন)। ছয় কোটি ২৪ লাখ ১৮ হাজার টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এ মামলা করা হয়েছে।

শামীমা নূর পাপিয়া ও তাঁর স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমনের বিরুদ্ধে ওই মামলা করেছেন দুদকের প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক শাহীন আরা মমতাজ।

মামলার বিবরণে বলা হয়েছে- গত বছরের ১২ অক্টোবর থেকে র‌্যাব কর্তৃক গ্রেপ্তার হওয়ার দিন অর্থাৎ চলতি বছরের ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ওয়েস্টিন হোটেলে প্রেসিডেনসিয়াল ও চেয়ারম্যান স্যুটসহ ২৫টি রুমে অবস্থান করে রুম-নাইট, রেস্টুরেন্ট (খাবার), রেস্টুরেন্ট (মদ), স্পা, লন্ড্রি, মিনি বার ফুড ও মিনি বার বাবদ মোট তিন কোটি ২৩ লাখ ২৪ হাজার ৭৬০ দশমিক ৮১ টাকার বিল শামীমা নূর পাপিয়া নিজেই নগদ পরিশোধ করেন। পাপিয়া বিলাস বহুল জীবন যাপন পছন্দ করতো বিধায় ওয়েস্টিন হোটেলে থাকাবস্থায় প্রায় ৪০ লাখ টাকার শপিং করেছে বলে সে জানায়।

বিজ্ঞাপন

বিবরণে আরও বলা হয়েছে, গত ২০১৫ সালের এপ্রিল থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত ৫ বছর মাসিক ৫০ হাজার টাকা হারে ৩০ লাখ টাকা বাসা ভাড়া দিয়েছে। গাড়ির ব্যবসায় ১ কোটি টাকা এবং নরসিংদীতে কেএমসি কার ওয়াশ সলিউশনে ২০ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছে। বিভিন্ন ব্যাংকে তাঁর ও তাঁর স্বামীর নামে ৩০ লাখ ৫২ হাজার ৯৫৮ টাকা জমা আছে। র‌্যাব তার বাসা থেকে ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে।

এছাড়া মফিজুর রহমান সুমনের নামে হোন্ডা সিভিএ ২০১২ মডেলের একটি গাড়ি আছে, যার দাম ২২ লাখ টাকা। এভাবে সব মিলিয়ে ৬ কোটি ২৪ লাখ ১৮ হাজার ৭১৮ টাকা জ্ঞাতভাবে অপরাধ করে অর্জনের মাধ্যমে তা খরচ করে। এসব টাকা অর্জনের স্বপক্ষে কোনও ধরনের বৈধ উৎস দেখাতে পারেন নি তাঁরা।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.