ডিসেম্বর ৯, ২০২১

The Bangla Kagoj

বিশ্বের সব দেশে, সব ভাষায়, সব সময় । বাংলা কাগজ । আপনার কাগজ । banglakagoj.net (আমাদের কোনও জাতীয় পত্রিকা নেই)।

ব্রডের ইতিহাস গড়ার দিনে সিরিজ ইংল্যান্ডের

স্টুয়ার্ট ব্রড- ক্রিকইনফো।

টেস্ট ইতিহাসের সপ্তম ও ইংলিশদের দ্বিতীয় বোলার হিসেবে ৫০০ উইকেটের এলিট ক্লাবে স্টুয়ার্ট ব্রডের নাম লেখানোর দিনে উইন্ডিজের বিপক্ষে ২৬৯ রানের দারুণ এক জয়ের সঙ্গে সিরিজও ঘরে তুলেছে ইংল্যান্ড। তিন টেস্টের সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এগিয়ে শুরু করার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ায় স্বাগতিকরা। তৃতীয় টেস্টের শেষদিনে মাইলফলক গড়া ব্রড ও ওকসের বোলিং তোপে ম্যাচ জিতে ২-১এ সিরিজ হাতে তোলে জো রুটের দল।

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : টেস্ট ইতিহাসের সপ্তম ও ইংলিশদের দ্বিতীয় বোলার হিসেবে ৫০০ উইকেটের এলিট ক্লাবে স্টুয়ার্ট ব্রডের নাম লেখানোর দিনে উইন্ডিজের বিপক্ষে ২৬৯ রানের দারুণ এক জয়ের সঙ্গে সিরিজও ঘরে তুলেছে ইংল্যান্ড।

তিন টেস্টের সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এগিয়ে শুরু করার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ায় স্বাগতিকরা। তৃতীয় টেস্টের শেষদিনে মাইলফলক গড়া ব্রড ও ওকসের বোলিং তোপে ম্যাচ জিতে ২-১এ সিরিজ হাতে তোলে জো রুটের দল।

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে টেস্টের চতুর্থ দিনে এক বলও খেলা সম্ভব হয়নি বৃষ্টিতে। তাতে ব্রডের পাঁচশর মাইলফলকের সঙ্গে ইংল্যান্ডের জয়ের অপেক্ষাও বাড়ে। প্রথম ইনিংসে অলআউট হওয়ার আগে ৩৬৯ রান তুলেছিল স্বাগতিকরা। জবাব দিতে নেমে ব্রডের তোপ অসহায় উইন্ডিজ ১৯৭ রানে গুটিয়ে যায়।

তাতে প্রথম ইনিংস থেকেই ১৭২ রানের বড় লিড আদায় করে নেয় ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে ২ উইকেটে ২২৬ রান তুলে খেলা ছাড়ে। ৩৯৯ রানের লক্ষ্য দাঁড়ায় সফরকারীদের সামনে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে আবার ব্রডের তোপের মুখে পড়ে। দ্বিতীয় ইনিংসে তাদের হারানো শুরুর ৩ উইকেটের সবকটি ব্রডের দখলে যায়। হোল্ডারের দল পরে গুটিয়ে যায় মাত্র ১২৯ রানে।

প্রথম ইনিংসে ৩১ রানে ৬ উইকেট নেয়া ব্রড দ্বিতীয় ইনিংসে নেন ৪ উইকেট। টেস্টে দুই ইনিংস মিলিয়ে তার তৃতীয়বার ম্যাচে দশ উইকেট। এদিন ব্রডকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন ক্রিস ওকস। ৫০ রানে নিয়েছেন ৫ উইকেট।

ব্রড সোমবারই (২৭ জুলাই) ইতিহাসে নাম লেখাতে পারতেন। বৃষ্টি তৃতীয় দিনের সারা খেলা ভাসিয়ে না নিলে। মঙ্গলবার ম্যাচ গড়ানোর খানিক পরে আবারও হানা দেয় প্রকৃতি। এবার আর দীর্ঘ হয়নি অপেক্ষা। ফের মাঠে ব্যাট-বলের লড়াই গড়াতেই কাঙ্ক্ষিত উইকেটটি তুলে নেন। ৫০০ ক্লাবে নাম লেখাতে তার লাগল ১৪০ টেস্ট, ইনিংসের হিসাবে ২৫৮।

বিজ্ঞাপন

ব্রডের ইতিহাস গড়া উইকেট হন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। ক্যারিবীয় ওপেনার ১৯ রানে থাকার সময় এলবিডব্লিউ ফাঁদে আটকান স্বাগতিক পেসার। চতুর্থ ইনিংসের ১৩ ওভার ৩ বলের খেলা চলছিল তখন।

৩৪ বছর বয়সী ব্রডের আগে টেস্টে পাঁচশ উইকেট ইতিহাসের ছোট্ট ক্লাবে নাম লিখিয়েছেন মাত্র ছয়জন। শীর্ষের তিনই আবার স্পিনার। শ্রীলঙ্কার মুত্তিয়া মুরালিধরন ধরাছোঁয়ার বাইরে যেয়ে অবসরে গেছেন ৮০০ উইকেট নিয়ে, অস্ট্রেলিয়ার সাবেক লেগস্পিনার শেন ওয়ার্নের নামের পাশে ৭০৮ উইকেট ও ভারতের সাবেক অনিল কুম্বলের শিকার ৬১৯ উইকেট।

পরের তিনজন অবশ্য পেসার। যার একজন খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন। ব্রডের সতীর্থ জেমস অ্যান্ডারসন, নামের পাশে ৫৮৯ উইকেট তার। অজিদের সাবেক গ্লেন ম্যাকগ্রা ৫৬৩ শিকার রেখে থেমেছেন ও উইন্ডিজের কোর্টনি ওয়ালশ ৫১৯ উইকেটে ক্যারিয়ার শেষ করেন। ব্রডের সতীর্থ অ্যান্ডারসনের ৫০০তম উইকেটটিও ছিলেন ব্র্যাথওয়েটই!

Facebook Comments Box

Contact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share