সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১

The Bangla Kagoj

আপনার কাগজ । banglakagoj.net

গ্রেপ্তার অপরাজিতার শারমিন জাহান তিন দিনের রিমান্ডে

শারমিন জাহান- বাংলা কাগজ।

বঙ্গবন্ধুু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নকল এন-৯৫ মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের করা মামলায় অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের মালিক শারমিন জাহানকে তিনদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। শনিবার (২৫ জুলাই) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে শারমিনকে ঢাকার সিএমএম আদালতে তুলে রিমান্ডের আবেদন করে ডিবি (গোয়েন্দা পুলিশ)। এর আগে শারমিনকে গ্রেপ্তার করে ডিবি।

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : বঙ্গবন্ধুু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নকল এন-৯৫ মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের করা মামলায় অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের মালিক শারমিন জাহানকে তিনদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। শনিবার (২৫ জুলাই) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে শারমিনকে ঢাকার সিএমএম আদালতে তুলে রিমান্ডের আবেদন করে ডিবি (গোয়েন্দা পুলিশ)। এর আগে শারমিনকে গ্রেপ্তার করে ডিবি।

শনিবার শারমিনের শুনানি শেষে ঢাকার মুখ্য হাকিম মাঈনুল হোসেনের আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাজধানীর শাহবাগ থানায় একটি মামলা করে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কর্তৃপক্ষ। সেই মামলায় গতকাল রাত সাড়ে ১০টার দিকে গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম শারমিনকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় ডিবি কার্যালয়ে।

শনিবার শারমিনকে আদালতে তুলে রিমান্ড আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে বিচারক তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। পরে ১টা ৫০ মিনিটের দিকে একটি মাইক্রোবাসে তাঁকে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

করোনা রোগীদের সেবায় নিয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের ‘নকল’ মাস্ক সরবরাহ করেন ছাত্রলীগের সাবেক নেত্রী শারমিন জাহান। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার। তাঁর প্রতিষ্ঠান অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে ১১ হাজার মাস্ক সরবারহের অনুমতি পেয়েছিল। তবে নকল মাস্ক দেওয়ার অভিযোগ এনে শারমিন জাহানের বিরুদ্ধে মামলা করে বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ। মামলায় একমাত্র আসামি করা হয়েছে শারমিন জাহানকে।

বিজ্ঞাপন

মামলায় বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শারমিন জাহানকে ১৮ জুলাই কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছিল। শারমিন ২০ জুলাই দেওয়া জবাবে ‘দুঃখ প্রকাশ’ করেন, যা দোষ স্বীকারের শামিল। মামলায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শারমিনের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজে স্নাতকোত্তর করা শারমিন ২০০২ সালে ছাত্রলীগের বাংলাদেশ কুয়েত মৈত্রী হল শাখার সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন। শারমিন ২০১৬ সালের ৩০ জুন স্কলারশিপ নিয়ে চীনের উহানের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যান। গত ২৩ জানুয়ারি থেকে উহানে লকডাউন শুরু হলে তিনি দেশে ফিরে আসেন। তাঁর শিক্ষা ছুটির মেয়াদ এখনও শেষ হয়নি।

Facebook Comments Box

Contact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share