৫ দিন আগেই পাপুলের স্ত্রী ও শ্যালিকা দুদকে হাজির

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : ২৭ জুলাই তলব করা হয়েছিল তাঁদেরকে। কিন্তু ৫ দিন আগেই হাজির হলেন দুদকে (দুর্নীতি দমন কমিশন)। কিন্তু কী কারণে হাজির হলেন- সে বিষয় এখনও জানা যায় নি।

জানা গেছে, বিতর্কিত সাংসদ কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের স্ত্রী সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য সেলিনা ইসলাম ও তাঁর (সেলিনা ইসলাম) বোন জেসমিন প্রধানকে তলব করে দুদক। গত ১২ জুলাই তাঁদেরকে তলব করা হয়। হাজির হবার জন্য বলা হয় ২৭ জুলাই।

গত ১২ জুলাই দুদকের উপ-পরিচালক ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা সালাহউদ্দীনের স্বাক্ষরে তলবের এই নোটিশ পাঠানো হয় বলে সংস্থাটির পরিচালক (জনসংযোগ) প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য একইদিন বাংলা কাগজ ও অন্য গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন।

জানা গেছে- অভিযোগের ‘সুষ্ঠু অনুসন্ধানের স্বার্থে’ তাঁদের (সেলিনা ও জেসমিন) বক্তব্য ‘শ্রবণ ও গ্রহণ করা প্রয়োজন’ উল্লেখ করে নোটিশে বলা হয়, “নির্ধারিত সময়ে হাজির হয়ে বক্তব্য প্রদানে ব্যর্থ হলে বর্ণিত অভিযোগের বিষয়ে তাঁদের কোনও বক্তব্য নেই মর্মে গণ্য করা হবে।”

বিজ্ঞাপন

এর আগে গত ২২ জুন একই অভিযোগে লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর) আসনের সংসদ সদস্য পাপুল, স্ত্রী সেলিনা, মেয়ে ওয়াফা ইসলাম ও শ্যালিকা জেসমিনের ব্যক্তিগত ও ব্যবসায়িক দেশি-বিদেশি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে থাকা সব ব্যাংক হিসাব স্থগিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংককে চিঠি দেয় দুদক।

এর আগে গত ১৭ জুন পাপুলের স্ত্রী, মেয়ে ও শ্যালিকার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেয় দুর্নীতি বিরোধী এ সংস্থা। পাশাপাশি পাপুল দেশে ফিরলে যেন আর বিদেশে যেতে না পারেন, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ারও অনুরোধ করে পুলিশের বিশেষ শাখায় (এসবি) চিঠি দেয় দুদক।

প্রসঙ্গত, জনশক্তি রপ্তানিকারক পাপুলকে গত ৬ জুন কুয়েতের মুশরিফ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে ওই দেশের পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে মানবপাচার, অর্থপাচার ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের শোষণের অভিযোগ এনেছে কুয়েতি প্রসিকিউশন।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.