৫ দিন করে রিমান্ডে শাহাবুদ্দিন মেডিক্যালের এমডি, সহকারি পরিচালক ও স্টোর কিপার

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : প্রতারণা ও অনিয়মের মামলায় রাজধানীর শাহাবুদ্দিন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ফয়সাল আল ইসলাম, সহকারি পরিচালক ডা. আবুল হাসনাত ও স্টোর কিপার শাহরিজ কবিরকে পাঁচ দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালত।

তাঁদের তিনজনের জামিন আবেদন নাকচ করে ঢাকার মহানগর হাকিম আশেক ইমাম মঙ্গলবার (২১ জুলাই) এই আদেশ দেন।

গত দুই দিনে র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার ফয়সাল, হাসনাত ও শাহরিজকে এদিন আদালতে হাজির করে সাতদিন করে রিমান্ডের আবেদন করা হয় গুলশান থানা পুলিশের পক্ষ থেকে।

অন্যদিকে আসামিদের আইনজীবীরা এর বিরোধিতা করে জামিনের আবেদন করেন।

শুনানি শেষে বিচারক জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়ে তিনজনকেই পাঁচ দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন।

বিজ্ঞাপন

গত ১৯ জুলাই শাহাবুদ্দিন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে নানা অনিয়মের প্রমাণ পাওয়ার কথা জানানো হয় র‌্যাবের পক্ষ থেকে। ওই সময়ই হাসনাত ও শাহরিজকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে ওই হাসপাতালের চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিনের ছেলে ফয়সাল এবং হাসনাত ও শাহরিজকে আসামি করে সোমবার (২০ জুলাই) রাতে গুলশান থানায় মামলা করেন র‌্যাবের নায়েব সুবেদার ফজলুল বারী।

ওইদিন রাতেই বনানীর ‘সুইট ড্রীম’ হোটেল থেকে ফয়সালকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তাঁর বাবা শাহাবুদ্দিনই ওই হোটেলের মালিক।

র‌্যাব জানায়- সরকারের অনুমোদন না থাকার পরও র‌্যাপিড কিট দিয়ে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা, পরীক্ষা ছাড়াই ভুয়া প্রতিবেদন দেওয়া এবং সুস্থ রোগীকে ‘করোনাভাইরাস পজিটিভ’ দেখিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা ছাড়াও মেয়াদোত্তীর্ণ মেডিক্যাল সরঞ্জাম রাখাসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ করা হয়েছে গুলশান থানার ওই মামলায়।

হাসপাতালটির লাইসেন্সের মেয়াদ এক বছর আগেই উত্তীর্ণ হওয়ার পরও তা নবায়ন করা হয় নি বলেই র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.