কারাবন্দি দিবসে শেখ হাসিনাকে লাল সালাম জানালেন তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন- শেখ হাসিনা আজ শুধু গণতন্ত্রের মানসকন্যা এবং গণতন্ত্রের মুক্তের প্রতীকই নন, শেখ হাসিনা আজ উন্নয়ন ও অগ্রগতির প্রতীক। তাঁকে লাল সালাম।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস উপলক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন- শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে সফলভাবে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ তাঁর নেতৃত্বে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। খাদ্য ঘাটতির দেশ থেকে খাদ্যে উদ্বৃত্তের দেশে রূপান্তরিত হয়েছে। দারিদ্র্য ৪১ শতাংশ থেকে ২০ শতাংশে নেমে এসেছে। পরপর তিন মেয়াদে তাঁর নেতৃত্বের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি যোগ করলে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি পৃথিবীতে সর্বোচ্চ। বাংলাদেশ এবং বাঙালি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পৃথিবীর সামনে মর্যাদার আসনে আসীন হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ সময় তথ্যমন্ত্রী বলেন- ২০০৭ সালের এই দিনে শেখ হাসিনাকে গ্রেপ্তার করার মধ্যদিয়ে প্রকৃতপক্ষে গণতন্ত্রকেই বন্দি করা হয়েছিল। সে কারণে ১৬ জুলাই শুধু শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস নয়, গণতন্ত্রেরও বন্দি দিবস।

ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন- গণতন্ত্রের মানসকন্যা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অগ্নিবীণা, যাঁর ধমনিতে বঙ্গবন্ধুর রক্তস্রোত প্রবহমান, যার কণ্ঠে বঙ্গবন্ধুর কণ্ঠ প্রতিধ্বনিত হয় এবং সংকটে-সংগ্রামে যিনি অবিচল-অনির্বাণ, আমাদের প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে এইদিনে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের নানা অনিয়মের প্রতিবাদ করায়। পিতার অপরাধে কন্যাকে গ্রেপ্তার, স্বামীর অপরাধে অসুস্থ স্ত্রীকে গ্রেপ্তার-তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের এ ধরনের কাজগুলোর যখন কেউ প্রতিবাদ করে নি, শেখ হাসিনা সেদিন প্রতিবাদ করেছিলেন। প্রকৃতপক্ষে অন্যায়, অবিচারের বিরুদ্ধে কণ্ঠরোধ করার জন্য, গণতন্ত্রকে বন্দি করার জন্যই সেদিন শেখ হাসিনাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। কিন্তু সেদিন যারা ক্ষমতায় ছিলো, তাঁরা অনুভব করতে বাধ্য হয়েছে যে, মুক্ত শেখ হাসিনার চেয়েও বন্দি শেখ হাসিনা অনেক বেশি শক্তিশালী।

ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের মানুষ সেদিন প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে। সেই প্রতিবাদ-প্রতিরোধের মুখে শেখ হাসিনাকে মুক্তি দিতে তাঁরা বাধ্য হয়েছিলো। শেখ হাসিনার মুক্তিলাভের মাধ্যমে গণতন্ত্র মুক্তি পেয়েছিলো। দেশের মানুষ ২০০৮ সালে ডিসেম্বরে শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসিয়েছিল।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.