অক্টোবর ২০, ২০২১

The Bangla Kagoj

বাংলা কাগজ । আপনার কাগজ । banglakagoj.net

মন্ত্রণালয়ের মৌখিক নির্দেশে রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ডিজি

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ- ফাইল ফটো, বাংলা কাগজ।

এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য সচিব আবদুল মান্নান বাংলা কাগজকে বলেন- নোটিশের এই জবাবে মন্ত্রণালয়ের মৌখিক নির্দেশে চুক্তিটি করার কথা বলা হয়েছে। এখন মন্ত্রণালয় তা যাচাই করে দেখবে।

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মৌখিক নির্দেশে রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে চুক্তি করেছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) আবুল কালাম আজাদ। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাবে তিনি এমন বক্তব্য দিয়েছেন। বুধবার (১৫ জুলাই) মন্ত্রণালয়ে এমন বক্তব্য দেন তিনি।

এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য সচিব আবদুল মান্নান বাংলা কাগজকে বলেন- নোটিশের এই জবাবে মন্ত্রণালয়ের মৌখিক নির্দেশে চুক্তিটি করার কথা বলা হয়েছে। এখন মন্ত্রণালয় তা যাচাই করে দেখবে।

বিশ্লেষকরা মনে করেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং অধিদপ্তরের মুখোমুখি অবস্থানের কারণে করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবেলার কর্মকাণ্ডে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে।

রিজেন্ট হাসপাতাল এবং এর মালিক মো. সাহেদের বিরুদ্ধে প্রতারণার নানা অভিযোগ যখন ওঠে, তখন হাসপাতালটির লাইসেন্স না থাকার পরও এর সঙ্গে সরকারের চুক্তি করার বিষয়টি আলোচনায় আসে। এ বিষয়ে বাংলা কাগজে প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়।

এমন চুক্তি করার দায় কার- এই প্রশ্নও অনেকে তোলেন।

নানা প্রশ্ন এবং আলোচনার মুখে এক সংবাদবিজ্ঞপ্তি দিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলেছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে চুক্তিটি করা হয়েছিল।

আর ওই বক্তব্যের ব্যাপারেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়ে তিন দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলেছিলো। এর সময়সীমার শেষদিন বুধবার মন্ত্রণালয়ে গিয়ে সচিবের কাছে নোটিশের লিখিত জবাব দিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।

বিজ্ঞাপন

পরে তিনি বাংলা কাগজকে বলেছেন, তিনি তাঁর জবাবে চুক্তি নিয়ে তাঁদের বক্তব্যের সমর্থনে যুক্তি এবং ব্যাখ্যা তুলে ধরেছেন।

“যে বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে, এর পক্ষে যুক্তি আমরা তুলে ধরেছি। তবে একটা কথা বলি, যেহেতু পদক্ষেপটাই পরিচালক হাসপাতাল শাখার মাধ্যমে হয়েছে, আমি তাঁকে বলেছিলাম, তার একটা লিখিত বক্তব্য এবং সাপোর্টিং পেপার যেন তিনি দেন। তিনি যে লিখিত জবাব দিয়েছেন, আমি তার ওপর ভিত্তি করেই জবাব পাঠিয়েছি।”

“মন্ত্রণালয় এখন বিবেচনা করবে। তারপর মন্ত্রণালয় যে সিদ্ধান্ত দেয়-সেটা হবে।”- বলেও মন্তব্য করেন আবুল কালাম আজাদ।

Facebook Comments Box

Contact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share