রিমান্ড শেষে কারাগারে ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : এমএল মর্নিং বার্ড ডুবিতে প্রাণহানির মামলায় ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদকে তিন দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে আদালত।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদরঘাট নৌ থানার উপ-পরিদর্শক শহিদুল আলম রোববার (১২ জুলাই) সোয়াদকে ঢাকার মুখ্য বিচারকি হাকিম আদালতে হাজির করে তাকে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করলে বিচারক শাহজাদী তাহমিদা তা মঞ্জুর করেন।

এ সময় আসামির পক্ষে কোনও আইনজীবী আদালতে হাজির ছিলেন না বলে এ আদালতের অতরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর আনোয়ারুল কবির বাবুল জানিয়েছেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার এ আদালতের বিচারক মনিকা খান আসামি মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন।

তাঁর আগের রাতে ঢাকার কলাবাগানের সোবহানবাগ এলাকার একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক সোয়াদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

গত ২৯ জুন ঢাকা সদরঘাটের কাছে বুড়িগঙ্গা নদীতে ময়ূর-২ লঞ্চের ধাক্কায় মুন্সীগঞ্জ থেকে যাত্রী নিয়ে আসা মর্নিং বার্ড নামে একটি ছোট লঞ্চ ডুবে অন্তত ৩৪ জনের মৃত্যু হয়।

ওই ঘটনায় নৌ-পুলিশে এসআই শামছুল আলম বাদী হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় মামলা করেন।

ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদ, মাস্টার আবুল বাশার, মাস্টার জাকির হোসেন, স্টাফ শিপন হাওলাদার, শাকিল হোসেন, হৃদয় ও সুকানি নাসির মৃধার নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতপরিচয় আরও পাঁচ থেকে ছয়জনকে সেখানে আসামি করা হয়।

প্রাণহানির ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ২৮০, ৩০৪ (ক), ৩৩৭ ও ৩৪ ধারায় অবহেলাজনিত মৃত্যুসহ কয়েকটি অভিযোগ আনা হয়েছে।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.