সাহেদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা, মুখপাত্র গ্রেপ্তার, ভায়রা র‌্যাব হেফাজতে

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম ওরফে মো. সাহেদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পুলিশ। একইসঙ্গে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সাহেদের মুখপাত্রকে। অপরদিকে, সাহেদের ভায়রাকে নেওয়া হয়েছে র‌্যাব হেফাজতে।

দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা : নানা অনিয়ম, প্রতারণা, সরকারের সঙ্গে চুক্তি ভঙ্গ ও করোনা টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার অভিযোগে রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট হাসপাতাল লিমিটেডের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম ওরফে মো. সাহেদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে র‍্যাব। মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তাঁর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) পুলিশের পক্ষ থেকে ইমিগ্রেশন বিভাগকে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে। পুলিশ সদর দপ্তরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা বাংলা কাগজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

চিঠিতে বলা হয়, প্রতারণা মামলার আসামি সাহেদের বিরুদ্ধে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তিনি যেন দেশের বাইরে যেতে না পারেন সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলা হচ্ছে।

মুখপাত্র গ্রেপ্তার ও ভায়রা র‌্যাব হেফাজতে : রিজেন্ট হাসপাতাল লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. সাহেদের মুখপাত্র তরিকুল ইসলাম ওরফে তারেক শিবলীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) সকালে রাজধানীর নাখালপাড়া থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে সাহেদের ভায়রা ভাই মোহাম্মদ আলী বশিরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে র‌্যাব। তিনি নাটক প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘টেলিহোম’-এর প্রধান।

বিজ্ঞাপন

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং-এর পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ বাংলা কাগজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, তারেক শিবলীকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাঁর কাছ থেকে আমরা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচ্ছি। তিনি সাহেদের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করতেন।

এই কর্মকর্তা আরও জানান, ৭ জুলাই রাতে বনানী থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসা হয় সাহেদের ভায়রা মোহাম্মদ আলী বশিরকে। অভিযোগ রয়েছে সাহেদের অবৈধ টাকা দিয়ে আলী বশির নাটক প্রযোজনা করতেন। এই অভিযোগে এবং সাহেদ সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে আনা হয়েছে।

তাঁকে গ্রেপ্তার দেখানো হবে কিনা, এ বিষয়ে আশিক বিল্লাহ বলেন, এখনও এ ব্যাপারে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহভাজনদের নমুনা নিয়ে তা পরীক্ষা না করাসহ বিভিন্ন অভিযোগে গত ৭ জুলাই উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করে র‌্যাব। তাতে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যানসহ ১৭ জনের নাম উল্লেখসহ ২৬ জনকে আসামি করা হয়।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.