মেঘনায় ২ লঞ্চের সংঘর্ষ, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন সহস্রাধিক যাত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : মধ্যরাতে মেঘনা নদীতে দুই লঞ্চের মুখোমুখী সংর্ঘর্ষের পরও অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন সহস্রাধিক যাত্রী।

সোমবার (৬ জুলাই) মধ্যরাতে মেঘনা নদীর মিয়ারচর এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে দুটি লঞ্চের সামনে আংশিক ক্ষতি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়- ঢাকা-কালাইয়া রুটে বন্ধন-৫ ও ঢাকা-গলাচিপা রুটে পূবালী-৫ যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল করে।

সোমবার বিকালে যাত্রী নিয়ে বন্ধন-৫ ঢাকা থেকে ছেড়ে আসে আর পূবালী-৫ গলাচিপা থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়। রাত ১২টার দিকে দুটি লঞ্চ মেঘনা নদীর মিয়ারচর চ্যানেল অতিক্রম করার সময় মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। ঘটনার সময় দুই লঞ্চে সহস্রাধিক যাত্রী ছিল।

বিজ্ঞাপন

সংঘর্ষে দুটি লঞ্চের সামনের অংশ আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্ধন-৫ লঞ্চের যাত্রী রুহুল আমিন বলেন, মাঝরাতে বিকট শব্দে ঘুম ভেঙে যায় সব যাত্রীর। সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। মহান আল্লাহ রাব্বুল আল-আমিনের ইচ্ছায় বেঁচে গেলাম।

পূবালী-৫ লঞ্চের পরিদর্শক আবদুস সোবহান বলেন, ওই চ্যানেলে সাধারণত কম গতিতে আমরা লঞ্চ চালাই। কিন্তু দ্রুতগতিতে অতিক্রম করছিল বন্ধন-৫ লঞ্চটি। বারবার সিগন্যাল দেয়ার পরও বন্ধন-৫ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে বন্ধন-৫ লঞ্চের পরিদর্শক শাহজাহান হাওলাদার বলেন, রঙ সাইড দিয়ে পূবালী-৫ লঞ্চটি ওই চ্যানেল অতিক্রম করার সময় সংঘর্ষ হয়। এতে আমাদের কোনো ত্রুটি ছিল না। ঘটনার পর দুটি লঞ্চ গন্তব্যের উদ্দেশ্যে চলে যায়।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) ভোরে বন্ধন-৫ কালাইয়াঘাটে এবং পূবালী-৫ ঢাকা সদরঘাটে যাত্রীদের পৌঁছে দেয়।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.