ডিসেম্বর ৯, ২০২১

The Bangla Kagoj

বিশ্বের সব দেশে, সব ভাষায়, সব সময় । বাংলা কাগজ । আপনার কাগজ । banglakagoj.net (আমাদের কোনও জাতীয় পত্রিকা নেই)।

খাদ্যে ভেজাল মেশালে জরিমানা নিয়ে প্রশ্ন নয় : তাপস

ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস- ফাইল ফটো, বাংলা কাগজ।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবাজারে আধুনিক খাদ্য পরীক্ষাগার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : খাদ্যে ভেজাল মেশালে জরিমানা নিয়ে কোনও প্রশ্ন করা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবাজারে আধুনিক খাদ্য পরীক্ষাগার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (এডিবি) অর্থায়নে স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় “আরবান পাবলিক অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল হেলথ সেক্টর ডেভেলপমেন্ট” প্রকল্পের অধীনে সাতটি সিটি করপোরেশনে আধুনিক খাদ্য পরীক্ষাগার নির্মাণের অংশ হিসেবে ওই খাদ্য পরীক্ষাগারের কার্যক্রম চালু শেষে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, “আগে যখন বিভিন্ন কোম্পানির ভেজাল পণ্যের ওপর জরিমানা করা হতো, তখন তারা সরকারের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দিত। তাঁদের যুক্তি ছিল, আমরা তাঁদের খাদ্যসামগ্রীর যথাযথ মান পরীক্ষা করেছি কি-না বা করলেও পরীক্ষায় তাঁর সঠিক প্রতিফলন হয়েছে কি না? এ রকম অনেকগুলো মামলা এখনও বিচারাধীন রয়েছে। কিন্তু এই পরীক্ষাগার চালু হওয়ায় এখন থেকে খাদ্যে ভেজাল মেশানো ব্যবসায়ীরা তাঁদের মানহীন পণ্যের বিরুদ্ধে আরোপিত জরিমানা নিয়ে আর কোনো ধরনের প্রশ্ন উত্থাপন করতে পারবে না।”

ঢাকা দক্ষিণের মেয়র বলেন, “এটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত পরীক্ষাগার ফলে এখন থেকে আমরা সব ধরনের পণ্যের মান সঠিকভাবে নিরুপণ এবং ভেজাল পণ্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারব। তাই ঢাকাবাসীর জনস্বাস্থ্য তথা স্বাস্থ্যকর খাদ্য নিশ্চিত করতে এ আধুনিক খাদ্য পরীক্ষাগারটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।”

শেখ তাপস আরও বলেন, “খাদ্যসামগ্রীর মান নিশ্চিতের জন্য সিটি করপোরেশনকে দায়িত্ব প্রদান করা হলেও মান নির্ণয়ে আমাদের স্বয়ংসম্পূর্ণতা ছিল না। এই পরীক্ষাগার উদ্বোধনের মাধ্যমে আমরা মান নির্ণয়ের ক্ষেত্রে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করলাম।”

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. ইমদাদুল হক ও ডিএসসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (ডা.) শরীফ আহমেদ।

Facebook Comments Box

Contact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share