জুন ২২, ২০২১

The Bangla Kagoj

আপনার কাগজ । banglakagoj.net

কুমিল্লায় নিজ বাড়িতে মারা গেলেন ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান

ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান- বাংলা কাগজ।

৭৪ বছর বয়সী এই ব্যবসায়ী ট্রান্সকম গ্রুপের কর্ণধার। এই গ্রুপ ফাস্টফুড, কোমল পানীয়, ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক পণ্য, ওষুধ, সংবাদপত্র, চা শিল্প, বিমা ইত্যাদি ব্যবসায়ের সঙ্গে জড়িত। ট্রান্সকম গ্রুপ যার উৎপত্তি হয়েছিল চা চাষের মাধ্যমে, এখন বাংলাদেশের অন্যতম একটি বড় করপোরেট প্রতিষ্ঠান, যার রয়েছে ১৬টি কোম্পানি। ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান করেছে এ গ্রুপ।

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : মারা গেলেন বিশিষ্ট শিল্পপতি লতিফুর রহমান। ট্রান্সকম গ্রুপের এ চেয়ারম্যান বুধবার (১ জুলাই) কুমিল্লায় নিজ বাড়িতে মারা যান।

এ তথ্য নিশ্চিত করে ট্রান্সকম গ্রুপের একজন কর্মকর্তা বাংলা কাগজকে বলেন, মরদেহ ঢাকায় আনা হবে। আজ বাদ এশা গুলশানের আজাদ মসজিদে তাঁর নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর রাতেই বনানী কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হবে।

লতিফুর রহমান ১৯৪৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তার স্ত্রীর নাম শাহনাজ রহমান। এই দম্পতির এক ছেলে আর দুই মেয়ে।

জানা গেছে, তিনি বেশ দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। শেষ সময়গুলোর বেশিরভাগ সময়ই তিনি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের বাড়িতে থাকতেন।

৭৪ বছর বয়সী এই ব্যবসায়ী ট্রান্সকম গ্রুপের কর্ণধার। এই গ্রুপ ফাস্টফুড, কোমল পানীয়, ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক পণ্য, ওষুধ, সংবাদপত্র, চা শিল্প, বিমা ইত্যাদি ব্যবসায়ের সঙ্গে জড়িত। ট্রান্সকম গ্রুপ যার উৎপত্তি হয়েছিল চা চাষের মাধ্যমে, এখন বাংলাদেশের অন্যতম একটি বড় করপোরেট প্রতিষ্ঠান, যার রয়েছে ১৬টি কোম্পানি। ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান করেছে এ গ্রুপ।

বিজ্ঞাপন

এছাড়াও লতিফুর রহমান নেসলে বাংলাদেশ, হোলসিম বাংলাদেশ এবং ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স ও ইনভেস্টমেন্টের চেয়ারম্যান। তিনি লিন্ডে বাংলাদেশ এবং এনজিও ব্র্যাকের গভর্নিং বোর্ডের পরিচালক। এছাড়া তিনি আইসিসি বাংলাদেশের সহ-সভাপতিও।

উল্লেখ করা যেতে পারে, ট্রান্সকম গ্রুপের মালিকানায় যাত্রা শুরু করেছিল দেশের দুটি জনপ্রিয় সংবাদপত্র প্রথম আলো ও দ্য ডেইলি স্টার।

Facebook Comments Box

Call Now ButtonContact us

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share