জানুয়ারি ২৯, ২০২২

বাঙলা কাগজ

The Bangla Kagoj । সবচেয়ে বেশি দেশে, সবচেয়ে বেশি ভাষায়। বাঙলা কাগজ । আপনার কাগজ । banglakagoj.net (আমাদের কোনও জাতীয় পত্রিকা নেই)।

লঞ্চ ডুবির নামে বুড়িগঙ্গায় হত্যাকাণ্ড!

২৯ জুন বুড়িগঙ্গায় লঞ্চ ডুবির ঘটনায় ৩০ জন প্রাণ হারান- বাংলা কাগজ।

বাংলা কাগজের অনুসন্ধানে বিষয়টি এমনই মনে হয়েছে। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে মনে হয়েছে, ঘটনাটি পূর্ব পরিকল্পিত। এটি ইচ্ছে করেই ঘটনাে হয়েছে। সকাল ১১টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে থেকে এ প্রতিবেদক বিভিন্ন প্রত্যক্ষদর্শী ও অন্য মাধ্যমের মাধ্যমে খোঁজ নিয়ে এটুকু নিশ্চিত হয়েছেন, ঘটনাটির পেছনে বড় কোনও অশুভ শক্তির হাত রয়েছে।

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : পুরান ঢাকার শ্যামবাজারের কাছে লঞ্চ ডুবির ঘটনা সাধারণ মনে হয় নি। বাংলা কাগজের অনুসন্ধানে বিষয়টি এমনই মনে হয়েছে। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে মনে হয়েছে, ঘটনাটি পূর্ব পরিকল্পিত। এটি ইচ্ছে করেই ঘটনাে হয়েছে। সকাল ১১টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে থেকে এ প্রতিবেদক বিভিন্ন প্রত্যক্ষদর্শী ও অন্য মাধ্যমের মাধ্যমে খোঁজ নিয়ে এটুকু নিশ্চিত হয়েছেন, ঘটনাটির পেছনে বড় কোনও অশুভ শক্তির হাত রয়েছে।

এদিকে লঞ্চ ডুবির ঘটনাকে বাংলা কাগজের ন্যায় হত্যাকাণ্ড হিসেবেই আখ্যা দিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ঘটনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনার সঙ্গে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানানো হয়, সরকারপ্রধান লঞ্চডুবিতে প্রাণহানির ঘটনায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

‘প্রধানমন্ত্রী নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন এবং তাঁদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনাও জানিয়েছেন।’

আর লঞ্চ ডুবির ঘটনাকে হত্যাকাণ্ড হিসেবে দাবি করেছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

বেলা সাড়ে ৩টার দিকে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজকের ঘটনাটি অন্যান্য ঘটনা থেকে একেবারেই আলাদা। আমি সিসিটিভি ফুটেজ দেখেছি এবং দেখার পরে আমার কাছে মনে হয়েছে ঘটনাটি ইচ্ছাকৃতভাবে ঘটানো হয়েছে। এটা মনে হচ্ছে একটা হত্যাকাণ্ড।’

ঘটনা তদন্তে একজন যুগ্ম সচিবের নেতৃত্বে সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে এবং কমিটিকে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে জানিয়ে খালিদ মাহমুদ বলেন, ‘তদন্তের পরে আমরা প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেব।’

বিজ্ঞাপন

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যেক পরিবারকে দাফনের জন্য ১০ হাজার টাকা এবং প্রতিটি পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসাবে এক লাখ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করবেন।

উল্লেখ করা যেতে পারে, সোমবার (২৯ জুন) সকালে পুরান ঢাকার শ্যামবাজারের কাছে বুড়িগঙ্গায় চাঁদপুর থেকে আসা ময়ূর-২ লঞ্চের ধাক্কায় ডুবে যায় মুন্সীগঞ্জের কাঠপট্টি থেকে যাত্রী নিয়ে ঢাকার সদরঘাটের দিকে আসা লঞ্চ এমভি মর্নিং বার্ড।

ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদের পাশাপাশি নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, নৌপুলিশ ও বিআইডব্লিউটিএর কর্মীরা সেখানে উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে সর্বশেষ খবর (বিকেল চারটা) পাওয়া পর্যন্ত ৩০ জনের লাশ উদ্ধার করার কথা জানান।

Facebook Comments Box

বাংলা কাগজ এ আপনাকে স্বাগতম।

X
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
Facebook91m
Twitter38m
LinkedIn4m
LinkedIn
Share
Contact us