করোনামুক্ত হয়েই নয় পদে বদল আনলেন সিএমপি কমিশনার

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)-মুক্ত হয়েই নয় পদে বদল আনলেন সিএমপি (চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ) কমিশনার মাহবুবুর রহমান। রোববার (২৮ জুন) পৃথক আদেশে এমন বদল আনেন তিনি।

জানা গেছে, সিএমপি কমিশনার বদল এনেছেন নগর গোয়েন্দা শাখা ও ট্রাফিক বিভাগে। একইসঙ্গে প্রসিকিউশনে পদায়ন করেছেন উপ-কমিশনার (ডিসি) পদে।

এর আগে প্রসিকিউশনের সর্বোচ্চ কর্মকর্তা ছিলেন অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি)। ফলে গোয়েন্দা শাখার দুই জোনে দুই উপ-কমিশনারকেই সামলাতে হতো পুরো নগর। এবার তা চারভাগ করে এতে আরও দুইজন উপ-কমিশনারকে পদায়ন করা হয়েছে। একইভাবে ট্রাফিক বিভাগ ছিল দুটো, এখন ট্রাফিক বিভাগকেও করা হয়েছে চারভাগ। যাতে পদায়ন করা হয়েছে আরও দুই উপ-কমিশনার।

নতুন আদেশে ডিবি (গোয়েন্দা শাখা) উত্তরের ডিসি মিজানুর রহমানকে ডিবি দক্ষিণে, ট্রাফিক উত্তরের ডিসি মোহাম্মদ শহীদুল্লাহকে ট্রাফিক দক্ষিণে, পিওএম উত্তরের ডিসি মিলন মাহমুদকে ট্রাফিক উত্তরে এবং এম এন নাসির উদ্দিনকে ডিসি প্রসিকিউশন হিসেবে পদায়ন করা হয়েছে। একইসঙ্গে মোহাম্মদ আলী হোসেনকে ডিবি উত্তর জোনের ডিসি ও মনজুর মোরশেদকে ডিবি পশ্চিমের ডিসি হিসেবে পদায়ন করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পৃথক এক আদেশে দক্ষিণ শাখা এডিসি (প্রশাসন) পংকজ বড়ুয়াকে এডিসি বন্দর জোন, এডিসি পিওএম এ এ এম হুমায়ুন কবিরকে এডিসি পশ্চিম জোন এবং এডিসি এস্টেট অ্যান্ড বিল্ডিং নাদিরা নুরকে অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে এডিসি সরবরাহ ও এমটির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিএমপি কমিশনার মো. মাহবুবর রহমান বলেন, ‘চট্টগ্রাম নগরবাসীকে আরও নিবিড়ভাবে সেবাদানের লক্ষ্যে আমরা জোনগুলোকে ভাগ করেছি। ট্রাফিক বিভাগ ও গোয়েন্দা বিভাগ ছিল দুইটা করে, এখন চারটা করা হয়েছে। প্রসিকিউশনে নতুনভাবে একজন ডিসি পদায়ন করা হয়েছে।’

এতে নগর পুলিশের গতি বাড়বে বলেও মন্তব্য করেন সিএমপি কমিশনার মাহবুবর রহমান।

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published.