Category: বিনোদন

কিংবদন্তি কবরীর প্রস্থানে ফেসবুক দেয়ালে বিষাদের ছায়া

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : কবরী নেই- এক মহানক্ষত্রের হঠাৎ বিদায়। খবরটি আসার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক যেন দুঃস্বপ্নে জেগে উঠলো। ফেসবুকের দেয়াল ঢেকে গেলো বিষাদের ছায়ায়। প্রিয় অভিনেত্রির এমন বিদায়ে শিল্পিরা জানিয়েছেন শ্রদ্ধা ও শোক। তাঁদের সেই কথালিপি দিয়েই সাজানো হলো এ আয়োজন :

সুবর্ণা মুস্তাফা, অভিনেত্রি
আপনার হাসি, আপনার অভিনয়, আপনার মিষ্টিমুখ- সকল বয়সের শ্রোতাদের মন্ত্রমুগ্ধ করেছে। রূপালি পর্দার সেরা অভিনেত্রি…। আমি কিভাবে আপনাকে বিদায় জানাবো…! দমবন্ধ লাগছে …! শান্তিতে থাকুন কবরী ফুপু।

বিজরী বরকতুল্লাহ, অভিনেত্রি
বরেণ্য অভিনয়শিল্পী সারাহ বেগম কবরী আর নেই। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করছি।

শাহনাজ খুশি, অভিনেত্রি
সব চেষ্টা ব্যর্থ করে চলে গেলেন কবরী আপা! কোথায় যেনো একটা আশা ছিলো, সবাইকে অবাক করে, আপনি সেই চিরচেনা মিষ্টি হাসি দিয়ে ফিরে আসবেন। কিন্তু এলেন না। শ্রদ্ধা, ভালবাসা। ওপারে শান্তিতে ঘুমান।

জুলফিকার রাসেল, গীতিকবি ও সাংবাদিক
প্রিয় অভিনেত্রি কবরীও চলে গেলেন! আমাদের আকাশে আলো কমে যাচ্ছে!

বেলাল খান, সঙ্গিতশিল্পি
আমাদের কৈশোরকালের নায়িকা ছিলেন কবরী। মুগ্ধ হয়ে দেখতাম তাঁকে। কী মিষ্টি হাসি তাঁর! শেষ বয়সে এসে রাজনীতিতেও নাম লেখালেন। এমপি হলেন। করোনা আক্রান্ত হয়ে গত কয়েকদিন ধরেই আইসিইউতে ভেন্টিলেটরে ছিলেন তিনি। আজ চলে গেলেন চিরতরে।

সিয়াম আহমেদ, অভিনেতা
অবশেষে ঢাকাই চলচ্চিত্রের অন্যতম সেরা অভিনেত্রি চলচ্চিত্রের ‘মিষ্টি মেয়ে’খ্যাত সারাহ বেগম কবরী চলে গেলেন করোনা আক্রান্ত হয়ে। আমি তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি।

কনকচাঁপা, কণ্ঠশিল্পি
আসলেই আর পারছি না! কবরী আপা নেই। ঘণ্টা পাঁচেক আগে দোয়া চেয়ে স্ট্যাটাস দিলাম আর এখনই এটা শুনলাম! এভাবেই আমরা একে একে হারাবো আমাদের প্রিয়জনকে! প্রিয়জন চলে গেলে পাঁজরটাই মনে হয় ভেঙে যায়। আর যদি মোটামুটি নিয়মিত হয়, তখন তা সহ্যের বাইরে চলে যায়। আল্লাহ, এই রমজানে চলে যাওয়া মানুষটিকে এবং আরও যাঁরা চলে যাচ্ছেন, সবাইকে তুমি দয়া করো।

তিমির নন্দী, কণ্ঠশিল্পি
আর নিতে পারছি না। করোনার কাছে পরাস্ত হয়ে চলে গেলেন সোনালি যুগের প্রিয় মুখ, প্রিয় নায়িকা, শ্রদ্ধেয় কবরী। সৃষ্টিকর্তা আপনার বিদেহী আত্মাকে চির শান্তি দান করুন। বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি।

আঁখি আলমগীর, কণ্ঠশিল্পি
কবরী আন্টি, ওপারে ভালো থাকবেন। আল্লাহ আপনাকে জান্নাত দান করুন, আমিন।

ইমন সাহা, সঙ্গিত পরিচালক
কতো স্মৃতি… কতো আদর, ভালবাসা, শাসন পেয়েছি আপনার কাছ থেকে। ঈশ্বর আপনার আত্মার মঙ্গল করুক আন্টি।

চঞ্চল চৌধুরী, অভিনেতা
কবরী আপা নেই…!

লুৎফর হাসান, সংঙ্গিতশিল্পি
পত্রিকায় কাজ করতাম, সেই সতেরো বছর আগে। তিনি বললেন, ‘তুমি কেমন লেখো, আমাকে দেখতে হবে’। আগের কিছু লেখা তাঁকে দেখালাম। তিনি বললেন ‘শব্দের জোর আছে, বলো কী জানতে চাও’। সে এক দীর্ঘ ইন্টারভিউ। ঈদ সংখ্যার লেখা। ছাপা হওয়ার পর তাঁকে দিতে গেলাম। আমার সামনেই পড়লেন। বললেন ‘তোমার লেখা দারুণ’। এই আশীর্বাদ আমি যত্নে রাখলাম। বাংলা চলচ্চিত্রের সেরা নায়িকা আজ চলে গেলেন। ভালো থাকবেন আপা।

বিদ্যা সিনহা মিম, চিত্রনায়িকা
ওপারে আপনি ভালো থাকুন। বিদায় কিংবদন্তি।

সোমেশ্বর অলি, গীতিকবি
কিংবদন্তির মৃত্যু নেই। কবরী মানে একটা ইতিহাস। আমরা তাঁর ক্ষুদ্র পাঠকমাত্র। আমাদের চোখভরা বিস্ময়… থাক, ‘স্মৃতিটুক থাক’, প্রিয় কবরী আপা…।

বুবলী, চিত্রনায়িকা
মৃত্যু সবচেয়ে বড় সত্য, কিন্তু এতো অবিশ্বাস্য কেনো? আমাদের সবার মৃত্যু হবে জেনেও মানতে ইচ্ছে করে না কেনো? পৃথিবীতে হয়তো এমন অনেক কেনোর কোনও উত্তর নেই। ওপারে ভালো থাকবেন কবরী ম্যাডাম। আপনার আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

চট্টগ্রামে বিনোদন-পর্যটনকেন্দ্র ও সিনেমা হল বন্ধ ঘোষণা

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাংলা কাগজ; চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত, বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্র, বিনোদনকেন্দ্র ও সিনেমা হল ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (পহেলা এপ্রিল) চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সম্প্রতি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের উদ্দশ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ১৮ দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান বাংলা কাগজকে বলেন, করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় পর্যটন ও বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, উচ্চ সংক্রমণের এলাকায় সব ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করতে হবে। মসজিদসহ ধর্মীয় সব উপাসনালয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। প্রয়োজন ছাড়া রাত ১০টার পর বের হওয়া যাবে না। হোটেল-রেস্তোরাঁয় নির্ধারিত আসনের অর্ধেক লোক থাকতে পারবে। নির্দেশনা পালনে ব্যর্থ হলে আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে গতকাল চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা ১৪ এপ্রিল বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

এ ছাড়া ৩ পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি, বান্দরবান ও রাঙামাটির সব পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা করে প্রশাসন।

৩০ মার্চ : সত্যজিৎ রায় অস্কার পুরস্কার ‘মাস্টার অব ফিল্ম মেকার’ লাভ করেন

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : আজ মঙ্গলবার; ৩০ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ; ১৬ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)।

আজকের দিনটি গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জি অনুসারে বছরের ৮৯তম দিন।

এ হিসাবে, বছর শেষ হতে আরও ২৭৬ দিন বাকি রয়েছে।

আজকের দিনে সত্যজিৎ রায় অস্কার পুরস্কার ‘মাস্টার অব ফিল্ম মেকার’ লাভ করেন।

ঘটনাবলি :
১২৮২ : সিসিলি থেকে ফরাসিদের বহিষ্কার করা হয়।
১৮১২ : কলকাতায় এথেনিয়াম থিয়েটার নামে রঙ্গমঞ্চ খোলা হয়।
১৮৬৭ : রাশিয়ার কাছ থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা খরিদ করা হয়।
১৯৩০ : চীনে বামপন্থী চীনা সাহিত্যিক সংঘ প্রতিষ্ঠিত হয়।
১৯৭১ : শিক্ষাবিদ জ্যোতির্ময় গুহ ঠাকুরতা শহীদ হন।
১৯৭৬ : ইসরায়েল/প্যালেস্টাইন এলাকায় প্রথম ভূমি দিবস পালিত হয়।
১৯৭৯ : ব্রিটিশ সাংসদ এ্যরি নীভ গাড়ি বোমা হামলায় নিহত হন।
১৯৮১ : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট রনাল্ড রেগান গুলিবিদ্ধ হন।
১৯৯২ : সত্যজিৎ রায় অস্কার পুরস্কার ‘মাস্টার অব ফিল্ম মেকার’ লাভ করেন।
১৯৯৬ : বিএনপি সরকার প্রথম সাংবিধানিক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের মধ্য দিয়ে পদত্যাগ করে।
২০০৬ : যুক্তরাজ্যে টেরোরিজন অ্যাক্ট- ২০০৬ আইন হিসাবে গৃহিত হয়।
২০০৯ : ১২ জন সশস্ত্র লোক পাকিস্তানের লাহোরে অবস্থিত মানাওয়ান পুলিশ একাডেমি আক্রমণ করে।

জন্ম :
১৭৪৬ : ফ্রান্সিস্কো গোয়া, স্প্যানিশ চিত্রকর জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ১৮২৮ খ্রিস্টাব্দ)।
১৮৪৪ : পল ভের্লেন, ফরাসি কবি জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ১৮৯৬ খ্রিস্টাব্দ)।
১৮৫৩ : ভিনসেন্ট ভ্যান গখ ওলন্দাজ চিত্রশিল্পী জন্মগ্রহণ করেন।
১৮৭০ : বসুমতীর সম্পাদক ও লেখক সুরেশচন্দ্র সমাজপতি জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ০১/০১/১৯২১ খ্রিস্টাব্দ)।
১৮৭৪ : নিকোলাই রদেস্কু, রোমানিয়ান সেনা কর্মকর্তা ও রাজনীতিক জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ১৯৫৩ খ্রিস্টাব্দ)।
১৮৯১ : যুক্তরাষ্ট্রের প্রকৌশলী ও যন্ত্র নির্মাতা আর্থার উইলিয়াম সিডনি হ্যাংরিটন জন্মগ্রহণ করেন।
১৮৯৯ : শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়, বাঙালি লেখক ও চিত্রনাট্যকার জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দ)।
১৯৭৯ : নোরা জোন্স, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত জ্যাজ্‌ (jazz) সঙ্গীতশিল্পী, পিয়ানো বাদক এবং অভিনেত্রী জন্মগ্রহণ করেন।
১৯৮৬ : সার্জিও র‌্যামোস, স্প্যানিশ ফুটবল খেলোয়াড় জন্মগ্রহণ করেন।

মৃত্যু :
১৬৬৩ : মীর জুমলা, মোগল সেনাপতি।
১৯৫৬ : দক্ষিণারঞ্জন মিত্র মজুমদার বাংলা ভাষার রূপকথার প্রখ্যাত রচয়িতা ও সংগ্রাহক (জন্ম : ১৫/০৪/১৮৭৭ খ্রিস্টাব্দ)।
১৯৬৫ : সতীনাথ ভাদুড়ী, প্রথিতযশা বাঙালি সাহিত্যিক (জন্ম : ২৭/০৯/১৯০৬ খ্রিস্টাব্দ)।
১৯৭১ : এ কে এম সামসুল হক খান, জেলা প্রশাসক, কুমিল্লা জেলা।
২০০২ : আনন্দ বক্সী, ভারতীয় প্রখ্যাত কবি, গীতিকার ও সুরকার (জন্ম : ২১/০৭/১৯৩০ খ্রিস্টাব্দ)।
২০০৫ : ফ্রেড কোরমাতসু, জাপানি বংশদ্ভূত মার্কিন এক্টিভিস্ট (জন্ম : ১৯১৯ খ্রিস্টাব্দ)।
২০১৩ : ড্যানিয়েল হফম্যান, মার্কিন কবি ও শিক্ষাবিদ (জন্ম : ১৯২৩ খ্রিস্টাব্দ)।

দিবস :
ভূমি দিবস : প্যালেস্টাইন/ইসরায়েল।
বিশ্ব চিকিৎসক দিবস।

জন্মদিনে সুপারস্টার শাকিবের জন্য চমক

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : ঢাকাই চলচ্চিত্রের বর্তমান সময়ের অপ্রতিদ্বন্দ্বি সুপারস্টার শাকিব খানের জন্মদিন ২৮ মার্চ (রবিবার)। ১৯৭৯ সালে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

এবার কিং খানের জন্মদিনে চমক দিয়েছেন তাঁর অন্তরাত্মা সিনেমার প্রযোজক সোহানী হোসেন।

পাবনার এক বিলাসবহুল রিসোর্টে শুটিং চলছে শাকিব খানের আসন্ন ঈদের সিনেমা অন্তরাত্মার।

রাত ১২টার আগে আগে দুটি হাতি ও ব্যান্ডপার্টি নিয়ে সেখানে হাজির হন সিনেমাটির প্রযোজক সোহানী হোসেন।

ধুমধাম আয়োজনে শুটিং ইউনিটের সঙ্গে রাত ১২টার পর কেক কাটেন শাকিব খান। প্রযোজক সোহানী হোসেনের এমন আয়োজনে চমকে যান শাকিব খান। সেইসঙ্গে তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

জন্মদিন উদ্‌যাপনের ভিডিও শাকিব খানের অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা হয়েছে। পাশাপাশি এটি বিভিন্ন চ্যানেলেও প্রচার করা হয়েছে।

সেখানে দেখা যায় হাতি দুটিও শাকিবের মাথায় শুঁড় বুলিয়ে দিচ্ছে। এমন মুহুর্তে খুবই উচ্ছসিত দেখা যায় শাকিবকে।

কেক কাটার পর পুরো অন্তরাত্মা টিমের সঙ্গে নাচেনও তিনি। তাঁর সঙ্গে নাচে যোগ দেন সিনেমার নায়িকা কলকাতার অভিনেত্রী দর্শনা বণিক।

গত ৬ মার্চ পাবনায় শুরু হয় অন্তরাত্মা সিনেমার শুটিং। শাকিব খানকে নিয়ে প্রযোজক সোহানী হোসেনের এটি দ্বিতীয় সিনেমা। এর আগে শাকিব খানকে নিয়ে স্বত্তা নামের সিনেমা প্রযোজনা করেছিলেন তিনি। সোহানীর বাড়ি পাবনা হওয়ায় সিনেমার শুটিং হচ্ছে সেখানে।

সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত অনন্ত ভালোবাসা চলচ্চিত্র দিয়ে ১৯৯৯ সালে ঢালিউডে যাত্রা শুরু করেন শাকিব খান। এরপর দুই দশকের বেশি সময় ধরে মাতিয়ে রেখেছেন ঢালিউড। এরমধ্যে এক দশক ধরে বড় পর্দায় একক রাজত্ব চালিয়ে যাচ্ছেন এই সুপারস্টার।

২৮ মার্চ : সুপারস্টার শাকিব খানের জন্মদিন আজ

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : আজ রবিবার; ২৮ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ; ১৪ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)।

আজকের দিনটি গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জি অনুসারে বছরের ৮৭তম দিন।

এ হিসাবে, বছর শেষ হতে আরও ২৭৮ দিন বাকি রয়েছে।

আজকের দিনে জন্মগ্রহণ করেন সুপারস্টার শাকিব খান।

ঘটনাবলি :
১৯৪১ : সুভাষচন্দ্র বসু গোপন সাবমেরিন যাত্রা শেষে বার্লিনে পৌঁছান।
১৯৪২ : রাসবিহারী বসু জাপানের টোকিওতে ভারত স্বাধীন করার আহ্বান জানিয়ে ভাষণ দেন। তিনি ভারতের ব্রিটিশবিরোধি আন্দোলনের বিপ্লবি নেতা ও ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল আর্মির সংগঠক।
১৯৭২ : বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় তাইওয়ান।
১৯৭৩ : বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় লেবানন।
১৯৭৪ : বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত হয়। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে এটি একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান।
২০০১ : যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ কিয়োটো প্রোটোকল থেকে মার্কিন সমর্থন প্রত্যাহার করে নেন।
২০১০ : মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান একটেল রবি আজিয়াটা কোম্পানি নামে আত্মপ্রকাশ করে।
২০১৯ : ঢাকার বনানীতে এফআর টাওয়ারে আগুন লেগে ২৫ জন নিহত হন।

জন্ম :
১৮৬৮ : রুশ, সোভিয়েত লেখক ও সমাজতান্ত্রিক বাস্তববাদি সাহিত্যের প্রতিষ্ঠাতা মাক্সিম গোর্কি জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দ)।
১৯০৭ : প্রগতিশীল লেখক ও বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা সত্যেন সেন জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ১৯৮১ খ্রিস্টাব্দ)।
১৯০৯ : বিশিষ্ট রবীন্দ্র সঙ্গীত ও নজরুলগীতি শিল্পী সন্তোষ সেনগুপ্ত জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ১৯৮৪ খ্রিস্টাব্দ)।
১৯৪৯ : লেসলি ভ্যালিয়ান্ট, খ্যাতিমান কম্পিউটার বিজ্ঞানি ও হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জন্মগ্রহণ করেন।
১৯৭৯ : শাকিব খান, একজন বাংলাদেশি চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক, গায়ক ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব জন্মগ্রহণ করেন।
১৯২৭ : বীণা মজুমদার, নারীবাদী ও শিক্ষাবিদ জন্মগ্রহণ করেন (মৃত্যু : ২০১৩ খ্রিস্টাব্দ)।

মৃত্যু :
১৯৬৯ : ডোয়াইট্‌ ডি. আইজেনহাওয়ার, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৩৪তম রাষ্ট্রপতি।

ঢাকায় মোদিকে ঘিরে তারার মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসান এবং অভিনেত্রী জয়া আহসানসহ বাংলাদেশের ক্রীড়া ও অভিনয়সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রের তারকারা।

শুক্রবার (২৬ মার্চ) দুপুরে হোটেল সোনারগাঁওয়ে সফররত ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তাঁরা।

মাশরাফি, সাকিব ও জয়ার পাশাপাশি অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া, নির্মাতা রেদোওয়ান রনি, নারী ক্রিকেটার সালমা খাতুন ও জাহানারা আলম, চিরকুট ব্র্যান্ডের শারমিন সুলতানা সুমি, জাগো ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা কোরভি রাকশান্দ ধ্রুব ছিলেন এই তারকাদের দলে।

তাঁদের সেই সাক্ষাতের ছবি টুইটারে শেয়ার করা হয়েছে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের অ্যাকাউন্ট থেকে থেকে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর আয়োজনে যোগ দিতে ২৬ মার্চ সকালে বাংলাদেশে পৌঁছান নরেন্দ্র মোদি।

বিকেলে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডের কেন্দ্রীয় আয়োজনে সম্মানিত অতিথি হিসেবে যোগ দিয়েছেন তিনি।

কনসার্ট ফর বাংলাদেশেরও সুবর্ণ জয়ন্তি : ফিরতে পারে উত্তরসূরিদের নিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তির বছরে ভারত সরকার ঐতিহাসিক সেই ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’ এর পুনঃমঞ্চায়নের পরিকল্পনা করছে বলে খবর এসেছে দেশটির সংবাদমাধ্যমে।

জি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইনডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনসের (আইসিসিআর) তত্ত্বাবধানে এ বছরই কোনও এক সময় এ কনসার্ট হতে পারে। তাতে নেতৃত্বে থাকতে পারেন মূল কনসার্টের উদ্যোক্তা দুই সঙ্গীত তারকা রবি শঙ্কর আর জর্জ হ্যারিসনের সন্তানেরা।

নিউইয়র্কের ম্যাডিসন স্কয়ার গার্ডেনে ১৯৭১ সালের পহেলা আগস্ট হয়েছিলো ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’। এপারে তখন স্বাধীনতার জন্য প্রাণপণে লড়ছেন মুক্তিকামি বাঙালিরা, ওপারে ভারত সীমান্তে মানবেতর জীবনযাপন করছেন এক কোটি শরণার্থি।

তাঁদের দুর্দশা দেখে কিছু করতে উদ্যোগি হন বিশ্বখ্যাত সেতারবাদক পণ্ডিত রবি শঙ্কর। নিজের ভাবনার কথা তিনি প্রকাশ করেন দীর্ঘদিনের বন্ধু বিটলস তারকা জর্জ হ্যারিসনের কাছে। হ্যারিসন বাকি শিল্পীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

৪০ হাজার শ্রোতা-দর্শক ওই কনসার্টে সমবেত হয়েছিলেন। কনসার্টের বিকালের ভাগের শেষ গানটি ছিলো জর্জ হ্যারিসনের ‘বাংলাদেশ বাংলাদেশ…’।

তাঁর আবেগময় কণ্ঠের ওই গানে বাংলাদেশের নাম রাতারাতি পৌঁছে যায় পৃথিবীর বহু মানুষের কাছে। ২০২১ সাল সেই কনসার্টেরও সুবর্ণ জয়ন্তির বছর।

জি নিউজ লিখেছে, সুবর্ণ জয়ন্তির এই সঙ্গীত আয়োজনে ভারত যে পরিকল্পনা করছে, তাতে নেতৃত্বে থাকবেন রবিশঙ্করের মেয়ে আনুশকা শঙ্কর এবং জর্জ হ্যারিসনের ছেলে ধানি হ্যারিসন।

তবে অনুষ্ঠানের সূচি এখনও ঠিক হয় নি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তির উদ্‌যাপনে অংশ নিতে দুই দিনের (২৬ ও ২৭ মার্চ) সফরে বাংলাদেশে আসা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরের সময়েই এ বিষয়ে ঘোষণা থাকতে পারে বলেই ধারণা দেওয়া হয়েছে জি নিউজের প্রতিবেদনে।

চলে গেলেন মুনীর চৌধুরীর স্ত্রী ও মিশুক মুনীরের মা লিলি চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : শহীদ বুদ্ধিজীবী মুনীর চৌধুরীর স্ত্রী, প্রয়াত সাংবাদিক মিশুক মুনীরের মা নাট্যাভিনেত্রী লিলি চৌধুরী আর নেই।

তাঁর ছোট ছেলে আসিফ মুনীর তন্ময় জানিয়েছেন, সোমবার (পহেলা মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বনানীর বাসায় তাঁর মায়ের মৃত্যু হয়।

বেতার, মঞ্চ ও টেলিভিশনের একসময়ের ব্যস্ত এই অভিনেত্রীর বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর।

আসিফ মুনীর জানান, আত্মীয়-স্বজনদের দেখার জন্য তার মায়ের মরদেহ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত বনানীর বাসায় রাখা হবে।

এরপর বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হবে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য।

জোহরের পর বনানী কবরস্থানে জানাজা শেষে ছেলের কবরের পাশে দাফন করা হবে লিলি চৌধুরীকে।

১৯২৮ সালের ৩১ অগাস্ট টাঙ্গাইলের জাঙ্গালিয়া গ্রামে নানা বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন লিলি, পৈত্রিক পদবিতে তখন তার নাম রাখা হয় লিলি মির্জা।

বাবা নূর মোহাম্মদ মির্জার ছিল বদলির চাকরি। সেই সুবাদে তৃতীয় শ্রেণি থেকেই হোস্টেল জীবন শুরু হয়। কলকাতায় বেগম রোকেয়া প্রতিষ্ঠিত সাখাওয়াত মেমোরিয়াল গার্লস স্কুলে তাকে ভর্তি করে দেন তার বাবা।

লিলি যখন সপ্তম শ্রেণিতে, রবীন্দ্রনাথের নাটকে তার প্রথম অভিনয়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় সাখাওয়াত মেমোরিয়াল কিছুদিনের জন্য বন্ধ হয়ে গেলে দিল্লিতে বাবা মায়ের কাছে চলে যান লিলি, ভর্তি হন ইন্দ্রপ্রস্থ গার্লস হাই স্কুলে। স্কুল বদলালেও অভিনয় ঠিকেই চলে।

দুই বছর পর আবার কলকাতায় ফিরে সাখাওয়াত মেমোরিয়াল থেকেই প্রবেশিকা শেষ করেন লিলি। এরপর লেডি ব্রেবোর্ন কলেজে পড়ার সময় দুই বছর হোস্টেল জীবনেও কলেজের নাটকে নিয়মিত অভিনয় করতে থাকেন। এরমধ্যেই আসে দেশভাগের সেই অস্থির সময়, কলকাতাজুড়ে দাঙ্গা। ১৯৪৮ এ নূর মোহাম্মদ মির্জা ঢাকায় চলে আসেন। আর লিলি মির্জার পরিচয় হয় মুনীর চৌধুরীর সঙ্গে।

লিলি তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। বাম রাজনীতিতে জড়িত মুনীর ১৯৪৯ সালের মার্চে গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে যান। পাঁচ মাস পর মুনীর মুক্তি পেলে তারা বিয়ে করে ফেলেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার সময় ১৯৫২ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি আবার গ্রেপ্তার হন মুনীর চৌধুরী। সেবার মুক্তি মেলে দুই বছর পর। এর মধ্যেই কারাগারে রচিত হয় ‘কবর’ নাটকটি।

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের শেষ ভাগে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের এ দেশীয় দোসরদের সহায়তায় শিক্ষাবিদ, চিকিৎসক, সাংবাদিকসহ হাজারো বুদ্ধিজীবীকে হত্যা করে। ১৪ ডিসেম্বর আলবদর বাহিনী এসে ধরে নিয়ে যায় মুনীর চৌধুরীকে। স্বামীর সঙ্গে সেই লিলির শেষ দেখা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করা লিলিকে সদ্য স্বাধীন দেশে কঠিন সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। চাকরির পাশাপাশি অভিনয় করে যান বেতার, মঞ্চ আর টেলিভিশনে।

মুনীর চৌধুরীর শুরু করা টেনেসি উইলিয়ামসের ‘স্ট্রিট কার নেমড ডিজায়ার’ নাটকের অসমাপ্ত অনুবাদের কাজ লিলিই শেষ করেন।

স্বামীর সঙ্গে তার পত্রালাপ আর দুজনের লেখা ডায়েরির সঙ্কলন প্রকাশিত হয়েছে ‘দিনপঞ্জি-মনপঞ্জি-ডাকঘর’ শিরোনামে।

কাজের স্বীকৃতি হিসেবে নাট্যকার-নাট্যশিল্পী সংসদ, টেলিভিশন নাট্যশিল্পী নাট্যকার সংসদ ও বাংলাদেশ মানবাধিকার নাট্য পরিষদের সম্মাননা পেয়েছেন লিলি চৌধুরী।

‘প্রদর্শনযোগ্য নয়’ : সেন্সর পায় নি ছবিটি

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : ‘মেকআপ’ চলচ্চিত্রটিকে প্রদর্শনের অযোগ্য ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান মো. জসীম উদ্দিন। ছবিটির ১৫টি দৃশ্যের সংলাপে আপত্তি জানিয়ে আটকে দেয় সেন্সর বোর্ড।

সিনেমা হলে মুক্তি দেওয়ার জন্য জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে ‘মেকআপ’ ছবিটি সেন্সর বোর্ডে জমা দেন নির্মাতা অনন্য মামুন। জমা দেওয়ার পর ছবিটি দেখেন জুরিবোর্ডের সদস্যরা। তাঁরা সম্মিলিত সিদ্ধান্তে জানিয়েছেন, ছবিটিতে দেশের মিডিয়াকে ছোট করে উপস্থাপনা করা হয়েছে। ছবিটি দেখে অনেকেই চলচ্চিত্রের মানুষদের ছোট করে দেখবেন। অনেকে পেশা হিসেবে এটাকে অসম্মানের চোখে দেখবেন। সে জন্য তাঁরা প্রায় ১৫টি দৃশ্যে সংলাপ ও গল্প নিয়ে আপত্তি জানান। পরে সেন্সর বোর্ড ছবিটি পর্যবেক্ষণে রাখে। সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান মো. জসীম উদ্দিন বলেন, ‘আমরা সেন্সর বোর্ডের নীতিমালা অনুযায়ী কাজ করি। সব সময় চেষ্টা থাকে, একটি ছবি সেন্সরে পাস হয়ে হলে মুক্তি পাক। মুক্তির উদ্দেশ্যে ‘মেকআপ’ ছবিটি সেন্সরে জমা দিয়েছিলেন নির্মাতা। এটি দেখে বোর্ডের কাছে মনে হয়েছিল, এখানে সেন্সর নীতিমালার পরিপন্থী কিছু বিষয় আছে। যে কারণে আমরা ছবিটি পর্যবেক্ষণে রেখেছিলাম। সম্প্রতি সিদ্ধান্ত হয়েছে, ছবিটি অপ্রদর্শনযোগ্য। এটা হলে মুক্তি পাবে না।’

একজন সুপারস্টারের জীবন নিয়ে ছবির গল্প। সুপারস্টার চরিত্রে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান। ছবিতে তাঁর নাম শাহবাজ খান। ২০১৯ সালে সুনামগঞ্জ, মানিকগঞ্জ ও ঢাকার বেশ কিছু স্থানে ছবিটির শুটিং হয়। ছবিটির গল্পে তুলে ধরা হয়েছে মিডিয়ার অন্তরালের মানুষের গল্প। যার উপস্থাপন সেন্সর বোর্ডের ভাষায় ‘আপত্তিজনক’। কিন্তু নির্মাতা অনন্য মামুন জানালেন, এই ছবিতে আপত্তিজনক বা কাউকে ছোট করা হয়নি। এখানে একজন সুপারস্টারের জীবনের গল্প দেখানো হয়েছে, যা কোনো বাস্তব গল্প নয়। এটাকে অন্যভাবে দেখার সুযোগ নেই। তিনি বলেন, ‘এখানে আমি কারও পক্ষ–বিপক্ষ নিয়ে কিছু দেখানোর চেষ্টা করিনি। আমি নিজেও একজন পরিচালক। অন্য চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, শিল্পীদের ব্যক্তিগত কিছু বিষয় গল্পের স্বার্থে তুলে ধরা হয়েছে, যেখানে কাউকে অসম্মান করা হয় নি। এভাবে একটা সিনেমাকে আটকে দেওয়া ঠিক নয়। একটা ছবিকে এভাবে আটকে দেওয়াটা চলচ্চিত্রশিল্পের ওপর আঘাত। এভাবে ভালো ছবি হবে না। এভাবে কোনো শিল্প হয় না।’

অনন্য মামুন জানান, তিনি সেন্সর বোর্ড থেকে চিঠি পেয়েছেন। তিনি আবারও চিন্তা করছেন, কিছু দৃশ্যের সংযোজন–বিয়োজন ঘটিয়ে ছবিটি সেন্সরে জমা দেবেন। তিনি মনে করেন, এভাবে সেন্সর বোর্ড ছবিকে নিষিদ্ধ করে দিলে তরুণ নির্মাতারা ছবি বানাতে উৎসাহিত হবেন না। বরং সেন্সর বোর্ডের মতাদর্শে ছবি বানাতে হবে, যার বেশির ভাগ ছবিই হলে চলে না। তিনি আশাবাদী, পুনরায় তাঁর ছবিকে সেন্সর দেওয়া হবে। এদিকে ছবিটি দেখে ক্ষুব্ধ সেন্সর বোর্ডের বেশ কয়েকজন সদস্য। তাঁদের ভাষ্য, ছবিটিতে চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে নেতিবাচক কিছু বিষয় দেখানো হয়েছে, যা দেখে এই ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে মানুষের মধ্যে ভুল ধারণার সৃষ্টি হতে পারে। সম্প্রতি অনন্য মামুনকে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। এর আগে ‘নবাব এলএলবি’ ছবিতে ‘অশ্লীল’ ও ‘কুরুচিপূর্ণ’ শব্দ ব্যবহারের জন্য জেলে যেতে হয়েছিল অনন্য মামুনকে। এখন তিনি জামিনে আছেন।

জয় বাংলা কনসার্ট এবার হচ্ছে না!

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : তরুণদের নিয়ে যে জয় বাংলা কনসার্ট প্রতিবছর ৭ মার্চ হয়ে আসছিলো, ‘কোভিড-১৯ মহামারির কারণে’ এবার তা হচ্ছে না।

কনসার্টের আয়োজক সংস্থা ইয়াং বাংলা তাঁদের ফেসবুক পেজে এক ঘোষণায় বলেছে, ‘কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবজনিত কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ইয়াং বাংলা আয়োজিত এবারের ৭ই মার্চের জয় বাংলা কনসার্টটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে না।’

২০১৫ সাল থেকে প্রতিবছর বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের দিনে ঢাকার আর্মি স্টেডিয়ামে এই কনসার্ট হয়ে আসছিলো। একাত্তরের যুদ্ধদিনের অনুপ্রেরণা যোগানো গানগুলো এ কনসার্টে ফিরিয়ে আনা হয় তরুণদের কণ্ঠে।

প্রতিবছর কয়েক লাখ তরুণ অনলাইনে ও সরাসরি কনসার্ট উপভোগ করতেন।

আওয়ামী লীগের গবেষণা উইং সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) প্রতিষ্ঠান ইয়াং বাংলার তত্ত্বাবধানে ‘জয় বাংলা কনসার্ট’ হয়ে আসছে।

এবার আর্মি স্টেডিয়ামে কনসার্ট না হলেও ঐতিহাসিক এ দিনটি ভার্চুয়ালি উদযাপন করা হবে বলে সিআরআইয়ের ফেইসবুক পেজে জানানো হয়েছে।

‘ঐতিহাসিক এই দিনটি আমরা ভার্চুয়ালি উদ্‌যাপন করব। চোখ রাখুন সিআরআই ও ইয়াং বাংলার ফেসবুক পেজে।’

বিগত বছরগুলোতে আয়োজিত জয় বাংলা কনসার্টে পপ ব্যান্ডগুলো নিজেদের গানের পাশাপাশি স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের গান পরিবেশন করেছে। গতবছরের কনসার্টে বঙ্গবন্ধুর ওপর একটি হলোগ্রাফিক শোও প্রদর্শিত হয়।

২০২০ সালের কনসার্টে প্রথমবারের মতো এই কনসার্টে চমক হয়ে আসেন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তাঁর সঙ্গে ছিলেন ছোট বোন শেখ রেহানাও। বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্রী সায়মা ওয়াজেদ হোসেন এবং দৌহিত্র রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকও ছিলেন সেই কনসার্টে।

ঢাকা শহরের পাড়া-মহল্লার তরুণ তরুণিদের দল, স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়কেন্দ্রিক তরুণরা দল বেঁধে কেউবা আবার বিচ্ছিন্নভাবে আসেন এ কনসার্টে; তাঁদের সঙ্গে দূরের অনেক জেলার দর্শকদেরও দেখা যায় কনসার্ট উপভোগ করতে।

ডিরেক্টরস গিল্ডে ফের সভাপতি লাভলু, প্রথমবার সম্পাদক সাগর

নিজস্ব প্রতিবেদন, বাংলা কাগজ : নাট্য নির্মাতাদের সংগঠন ডিরেক্টরস গিল্ডের নির্বাচনে ফের সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেতা-নির্মাতা সালাহউদ্দিন লাভলু। আর প্রথমবার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন নির্মাতা এস এম কামরুজ্জামান সাগর।

শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) সংগঠনটির দুই বছর মেয়াদি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

পরে রাতেই ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

ডিরেক্টরস গিল্ডের এবারের নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ছিল ৩৯৬ জন। এরমধ্যে ১২টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মোট ৩৪ জন নির্মাতা।

বিজয়িরা আগামী ২ বছরের জন্য সংগঠনটির নেতৃত্ব দেবেন।